মেহেরপুরে আওয়ামী লীগের সাবেক এমপির সংবাদ সম্মেলন

 

মেহেরপুর অফিস: সরকারি জমি দখল করে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি জয়নাল আবেদীন। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জয়নাল আবেদীন শহরের যাদবপুর সড়কে তার নিজ কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির আশ্রয় নেয়া এবং পৌর মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতুর সরকারি জমি দখল করে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ তোলা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সাবেক এমপি আলহাজ জয়নাল আবেদীন বলেন, হুইট ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হয়ে মেহেরপুরের কৃষকের গম জমিতেই নষ্ট হয়ে গেছে। কয়েক শ বিঘা জমিতে জিরার দানার ন্যায় গম হয়েছিলো। জমিতেই তা পুড়িয়ে ফেলেছে বারদি বীজ উৎপাদন খামার ও চিৎলা বীজ উৎপাদন খামার। লক্ষ্যমাত্রার সিকিভাগ গম উৎপাদন না হওয়ার পরেও অন্য জেলা থেকে গম এনে এমপির নেতৃত্বে তার আস্থাভাজনরা সরকারি খাদ্য গুদামে বিক্রি করছেন। অথচ ক্ষতিগ্রস্তদেরও যদি দু’এক টন করে গম দেয়ার ব্যবস্থা করতেন তবুও তারা ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারতেন। ‘বাজার থেকে গম কিনে গুদামে সরবরাহ করছে নেতারা’ শিরোনামে বাংলাদেশ প্রতিদিন-এ সংবাদে প্রকাশের পর তার মেহেরপুর প্রতিনিধিকে আসামি করে আদালতে মামলা করার ঘটনায় তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুস সামাদ বাবলু বিশ্বাসের সমালোচনা করে। তিনি প্রকাশিত সংবাদকে শতভাগ সত্য আখ্যায়িত করে  মিথ্যা মামলার তীব্র নিন্দা জানান সংবাদ সম্মেলনে।

তিনি আরো বলেন, পৌর মেয়র ইউজিআইআইপির ১৫ কোটির টাকার কাজে ১০ শতাংশ কমিশন নিয়ে সেখান থেকে ৫ শতাংশ কমিশনের টাকা বর্তমান এমপিকে দিয়েছেন। মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু পৌরসভা সংলগ্ন এক একর ৬২ শতক (পুরাতন হাসপাতালের) সরকারের জমি দখল করে পুরাতন ভবন ভেঙে বিশ কোটি টাকার ক্ষতি করেছেন এবং সেই জমিতে বহুতল মার্কেট নির্মাণ করছেন। অথচ জেলা প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করছে। পুরাতন হাসপাতালের ওই সরকারি জায়গাতে শিশু হাসপাতাল, ডায়াবেটিস হাসপাতাল ও চক্ষু হাসপাতাল নির্মাণের দাবি জানান জয়নাল আবেদীন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যেদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি  গোলাম রসুল, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আবদুল মান্নান ছোট ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী। এ সময় জেলার ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *