৯০ বছর বয়সে বাইসাইকেল চালিয়ে দেড় হাজার কি.মি. পাড়ি!

মাথাভাঙ্গা মনিটর: চির যৌবনের প্রতীক কবি কাজী নজরুল ইসলাম বলেছিলেন, বার্ধক্যকে সব সময় বয়সের ফ্রেমে বাঁধা যায় না। সেই কথাটিই ফের প্রমাণ করলেন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ৯০ বছর বয়সী বার্ট ব্লেভেন্স। অনেক টগবগে যুবক-তরুণই যেখানে নাকানি চুবানি খেয়ে ফিরে গেলেন, সেখানে কেন্টাকি থেকে ফ্লোরিডা পর্যন্ত এক বাইসাইকেল ম্যারাথনে অংশগ্রহণ করে এক হাজার ৪৯৭ কিলোমিটার অতিক্রম করলেন ব্লেভেন্স। গত ২০ আগস্ট কেন্টাকি থেকে যাত্রা করে ২১ দিনের মাথায় সম্প্রতি ফ্লোরিডায় পৌঁছে এ মহাকাব্যিক রেকর্ড গড়েন ব্লেভেন্স। এ রেকর্ড গড়তে টেনিসে, জর্জিয়া এবং ফ্লোরিডার বেশ লম্বা পথ পাড়ি দিতে হয়েছে ব্লেভেন্সকে। ব্লেভেন্সের সফর আরও বেশি দুঃসাহসিক হয়েছে এ জন্য যে, তাকে অনেক ঘুরে ঘুরে এবং অনেক ক্ষেত্রে দুর্গম পথও পাড়ি দিতে হয়েছে। কারণ তার তিন চাকা বিশিষ্ট গাড়িটি মহাসড়কে চালানোর অনুমতি নেই। তবে ম্যারাথনের নিয়ম অনুযায়ী এই লম্বা প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন হোটেলে খানিকটা বিশ্রাম নেয়ার সুযোগ পেয়েছেন তিনিও। এ রেকর্ড গড়ার পর উচ্ছ্বসিত ব্লেভেন্স সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমি অনেক সম্মানিতবোধ করছি, অনেক পরিশ্রান্তিবোধ করছি, অনেক ভালো অনুভব করছি। আমি অতোটা ক্লান্ত হইনি, যতোটা ভেবেছিলাম। তবে আমি খুব কমই বিশ্রাম নিয়েছিলাম প্রতিযোগিতায়। সংবাদমাধ্যম জানায়, ম্যারাথনের প্রথমার্ধে ব্লেভেন্সের ছেলে তাকে সঙ্গ দিয়েছিলেন। তারপর বাকি পথ অতিক্রমে তার সাথে ছিলেন মেয়ে বেথ। এ দুঃসাহসিক ম্যারাথন প্রতিযোগিতায় ব্লেভেন্সকে তারই উদ্ধৃতি যদি সামনে কোনো সুযোগ আসে, চেষ্টা করো। যদি না পারো সেটা অনেক খারাপ লাগার বিষয়, কিন্তু বিপর্যয় নয়’ লেখা টি-শার্ট পরে এবং প্ল্যাকার্ড ধরে উৎসাহ যুগিয়েছেন ভক্ত ও পারিবারিক স্বজনরা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *