সিরিয়া অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রকে ফ্রান্সের সমর্থন

মাথাভাঙ্গা মনিটর: সিরিয়ায় সামরিক অভিযানের সিদ্ধান্ত থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান মিত্র যুক্তরাজ্য সরে যাওয়ার পর এবার এ ব্যাপারে সুর নরম করলো ফ্রান্সও। গতকাল শুক্রবার ফরাসি দৈনিক লা মাঁদকে দেয়া সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদের কণ্ঠে নমনীয়তার ইঙ্গিতই পাওয়া গেল। যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে সিরিয়ায় অভিযানের বিষয়টি নাকচ হয়ে যাওয়ায় ফ্রান্স আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে না দাবি করলেও ওঁলাদে বলেন, সামরিক হস্তক্ষেপের সবগুলো পথই খোলা। তবে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারে সরকারি বাহিনীর সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া ছাড়া এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না। এছাড়া আগামী বুধবারের আগেই সম্ভাব্য হামলার সিদ্ধান্ত এখনও বাতিল করা হয়নি বলে জানান ওঁলাদে। প্রেসিডেন্টের বক্তব্য অনুযায়ী, রাসায়নিক অস্ত্র হামলায় আসাদ বাহিনীর সংশ্লিষ্টতা পাওয়া না গেলে হামলা চালাবে না ফরাসি বাহিনী। অথচ জাতিসংঘের পর্যবেক্ষকদের প্রতিবেদনের অপেক্ষা না করে গত বৃহস্পতিবারই অভিযানের ইঙ্গিত দিয়ে ভূমধ্য সাগরের সিরীয় উপকূলে রণতরী পাঠিয়ে দিয়েছিলো দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এদিকে সিরিয়ায় অভিযানের সিদ্ধান্ত থেকে প্রধান মিত্র দেশ যুক্তরাজ্য সরে আসায় বিপাকে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারপরও মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হেগেল জানিয়েছেন, সিরিয়ার সঙ্কট সমাধানে স্বেচ্ছায় কাজ করবে এমন মিত্র খুঁজে যাবে যুক্তরাষ্ট্র। আন্তর্জাতিক রাজনীতি ও সামরিক বিশ্লেষকরা বলছেন, যুক্তরাজ্যের পিছুটান এবং সর্বশেষ ফ্রান্সের এ নরম সুর সিরিয়া অভিযানের ব্যাপারে হোয়াইট হাউসকে নতুন করে ভাবতে বাধ্য করবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *