যশোর-১ আসনে আফিল উদ্দিনসহ সারাদেশে ৮ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন

স্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন সংসদ নির্বাচনে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে অন্তত ১৫টি দল অংশ নিচ্ছে। নির্বাচনে মোট ১১২১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এদিকে, এবার নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন ৮ জন আওয়ামী লীগ প্রার্থী। সোমবার রাত ১০টা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের কাছে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের পাঠানো তথ্যে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে রয়েছে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি (জাপা), জাতীয় পার্টি (জেপি), বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, তরিকত ফেডারেশন, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট পার্টি (বিএনএফ), ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইসলামিক ফ্রন্ট, খেলাফত মজলিস, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) এবং গণফ্রন্টসহ ১৫টি দল। এছাড়া নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন মোট ৯০ জন। সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ছিলো। এরপর ইসি সচিবালয়ে দেশের ৬৪টি জেলা থেকে রিটার্নিং অফিসাররা মনোনয়নপত্র জমা দেয়া প্রার্থীর সংখ্যা পাঠান। উল্লেখ্য, প্রথম সংসদ নির্বাচনে ১৪টি, দ্বিতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯টি, তৃতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৮টি, চতুর্থ সংসদ নির্বাচনে ৮টি, পঞ্চম সংসদ নির্বাচনে ৭৫টি, ষষ্ঠ সংসদ নির্বাচনে ৪১টি, সপ্তম সংসদ নির্বাচনে ৮১টি এবং অষ্টম সংসদ নির্বাচনে ৫৪টি দল অংশ নেয়। নবম সংসদে নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করায় ৩৮টি দল অংশগ্রহণ করে।
ইসি কর্মকর্তারা জানান, কোনো আসনে একক প্রার্থী থাকলে বাছাইয়ের পর প্রার্থিতা বৈধ হলেই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন পার হলেই তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণার বিধান রয়েছে। একাধিক প্রার্থী হলে প্রতীক বরাদ্দের পর নির্বাচন হবে। অন্তত দু জন প্রার্থী থাকলেও বাছাইয়ের পর একজনের মনোনয়নপত্র বাতিল হলে অন্য বৈধ প্রার্থীরও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। কোনো প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের পর বৈধ না হলে কিংবা কোনো বৈধ প্রার্থী না থাকলে বা বৈধ প্রার্থী মারা গেলে পুনঃতফসিল করতে হবে। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলেও তাদের ফলাফলের গেজেট প্রকাশ হবে ৫ জানুয়ারি ভোটের পর। সব নির্বাচিত প্রার্থীর নাম-ঠিকানা সংবলিত গেজেট প্রকাশ করবে ইসি। এবার ৮টি আসন থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন চাঁদপুর-১ আসন থেকে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, মৌলভীবাজার-৪ আসন থেকে সাবেক সরকারদলীয় চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ, নোয়াখালী-২ আসন থেকে মোর্শেদ আলম, কিশোরগঞ্জ-৪ আসন থেকে রেদোয়ান আহমেদ তৌফিক এবং মানিকগঞ্জ-২ আসন থেকে মমতাজ বেগম। এছাড়া লালমনিরহাট-২, টাঙ্গাইল-৩ এবং যশোর-১ আসন থেকেও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *