জীবননগরের নিশ্চিন্তপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে হামিদুলকে মারধরের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: জীবননগরের নিশ্চিন্তপুরে জমির ওপর পাঁচিল দেয়াকে কেন্দ্র করে হামিদুল নামের একজনকে তুলে নিয়ে মারধরের অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর মাদরাসাপাড়ার ফজলুর রহমানের ছেলে। গতকাল রোববার দুপুরে আহতাবস্থায় তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় হাসপাতালে হামিদুল ও তার শয্যাপাশে থাকা তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, কদিন আগে তাদের বাড়ির পাশে পাঁচিল দেয়া নিয়ে প্রতিবেশী মিঠুর সাথে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। গত শুক্রবার আমার বাবা ফজলুর রহমানকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করি। ওইদিন শুক্রবার রাত ১২টার দিকে মিঠু ও তার ভাই ফারুক এবং তাদের দুলাভাই গয়েশপুর ইউপি চেয়ারম্যান ময়েন উদ্দীনের সহযোগীতায় তার চাচা শরিফুল ও হামিদুলের ভাতিজা রাজ্জাক মিলে জীবননগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তুলে নিয়ে যায় পার্শ্ববর্তী একটি আমবাগানের ভেতর। সেখানে চেলা কাঠ দিয়ে আমাকে মারধর করা হয়। সেখান থেকে অন্য এক স্থানে নিয়ে আমাকে আটকে রাখে তারা। গতকাল রোববার সকালে তারা আমাকে আমার বাড়িতে রেখে যায় এবং কাউকে না বলার হুমকি দেয়। গতকাল আমার ভাই মাহাবুব জীবননগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এ ব্যপারে চেয়ারম্যান ময়েন উদ্দীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার লোকজন তাকে তুলে নিয়ে গেলেও মারধরের কথা ঠিক না। প্রথমে হামিদুল আমার শ্যালক মিঠুকে চড়থাপ্পড় মারে। আমাদের ভেতর মিমাংসা হয়েছে। এ ব্যপারে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহামুদুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার কাছে একটা অভিযোগ করা হয়েছে। তবে এ ব্যপারে খোঁজ নেয়া হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *