জীবননগরের দেহাটি এলাকায় ৪টি ইটভাটা মালিকের নিকট গণচাঁদা দাবি মামলায় একজন গ্রেফতার

জীবননগর ব্যুরো/ আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: জীবননগরের উথলী ইউনিয়নের দেহাটি এলাকায় ৪টি ইটভাটা মালিকের নিকট ৩৫ লাখ টাকা গণচাঁদা দাবি মামলায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে আকাশ নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।
গতকাল বেলা ১১টার দিকে জীবননগর থানা পুলিশের চৌকস দল অভিযান চালিয়ে দেহাটি বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতকে থানা হেফাজতে নিয়ে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চাঁদাবাজি ও ইটভাটায় বোমা হামলার ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টতার কথা অকপটে স্বীকার করেছে। তার অপর সহযোগীদের নামধাম প্রকাশ করায় পুলিশ গতকাল রাতে কয়েকদফা চাঁদাবাজ চক্রটির অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযানে নেমেছে। চক্রটি দফায় দফায় স্থান পরিবর্তন করায় তেমন কাউকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে কি-না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ধৃত চাঁদাবাজের স্বীকারোক্তি মতে সন্ধ্যায় কাশিপুর গ্রামের একটি নার্সারি থেকে পুলিশ বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার দেখিয়ে আলামত জব্দ করেছে। গ্রেফতারকৃত আকাশ উথলী ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং দেহাটি ওয়ার্ড মেম্বার দলুরুদ্দিন ওরফে দুলাল মেম্বারের ছেলে। পুলিশ আজ গ্রেফতারকৃতকে সংশ্লিষ্ট মামলায় আদালতে সোর্পদ করে রিমান্ডের আবেদন জানাবে।
এদিকে গতকাল সোমবার ফের ওই মোবাইলফোন নম্বর থেকে ইটভাটা মালিকদের নিকট চাঁদা দাবি করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত শনিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে ০১৮২৪-৯৮৪৫৫৩ মোবাইলফোন থেকে নিজেকে পুর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য সাগর পরিচয় দিয়ে দেহাটি পিয়াস ব্রিক্সের মালিক আসাদুজ্জামান আকুল মিয়ার নিকট ১০ লাখ, নিউ ব্রিক্সের মালিক জাহাঙ্গীর আলমের নিকট ৫ লাখ, সরকার ব্রিক্সের মালিক বাপ্পী সরকারের নিকট ১০ লাখ ও এএমবি ব্রিক্সের মালিক আরিফুল ইসলামের নিকট ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। দাবিকৃত চাঁদার টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় গত শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পিয়াস ব্রিক্সের পেছনে ২টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে দুর্বৃত্ত চাঁদাবাজ চক্র আতষ্ক সৃষ্টি করে। এ সময় ভাটার কর্মরত শ্রমিকরা চিৎকার দিলে দুস্কৃতকারীরা ইটভাটার পেছনের মাঠ দিয়ে পালিয়ে যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *