চুয়াডাঙ্গার নবাগত চিফ জুডিসিয়াল ম্যজিস্ট্রেটকে আইনজীবী সমিতির সংবর্ধনা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার নবাগত চিফ জুডিসিয়াল ম্যজিস্ট্রেট বেগম মমতাজ পারভীনকে সংবর্ধনা দিয়েছে জেলা আইনজীবী সমিতি। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে তিনটায় আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে এ সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনা সভায় জেলা ও দায়রা জজ কেজি মোস্তফা ও নবাগত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মমতাজ পারভীনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা ও দায়রা জজ কেজি মোস্তফা এ সময় বলেন, বিচারক ও আইনজীবীদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির কারণ থাকতে পারে না। মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে বাদী ও আসামীপক্ষের আইনজীবীদের আদালতে খেয়াল রাখতে হবে যে, আদালতে ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ, বাদী, আসামি ও উপস্থিত বিচারপ্রার্থীরা থাকেন। আদালতে এমন কিছু হওয়া ঠিক নয় যা মামলার কার্যক্রমে বিঘ্ন ঘটে। তিনি চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মমতাজ পারভীনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজনের জন্য জেলা আইনজীবী সমিতিকে ধন্যবাদ জানান।

w copy

চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এমএম শাহজাহান মুকুলের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাঈদ মাহমুদ শামীম রেজা ডালিমের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (১) নাজির আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (২) গোলক চন্দ্র বিশ্বাস, আইনজীবী সমিতির সহসভাপতি শহিদুল হক, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সেলিম উদ্দিন খান ও নুরুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার এবং সদস্য বজলুর রহমান, সৈয়দ হেদায়েত হোসেন আসলাম ও শফিকুল ইসলাম।

সংবর্ধনার জবাবে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মমতাজ পারভীন বলেন, চুয়াডাঙ্গা সম্পর্কে ভীতি নিয়ে এসেছিলাম। এর আগে চুয়াডাঙ্গায় সাত মাস অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। সঠিক বিচার এককভাবে বিচারক দিতে পারে না। বার ও বেঞ্চের সহযোগিতা না থাকলে ন্যায়বিচার সম্ভব নয়। এবারও সর্ব্বোচ মেধা নিয়ে কাজ করবো। আমাকে সহযোগিতা দিলে ন্যায়বিচারের ধারাবাহিকতা রাখতে পারবো।

উপস্থিত ছিলেন- যুগ্ম জেলা জজ মো. ইয়া রব, সদর সহকারী জজ আব্দুল হালিম, আলমডাঙ্গা সহকারী জজ মো. ছানাউল্ল্যাহ এবং সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মোহা. আমীনুল ইসলাম ও ফিরোজ মামুন।

গত ৭ জুলাই চুয়াডাঙ্গার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান শিকদার ঢাকা হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরে সিভিল অ্যাভিয়েশনের আইন কর্মকর্তা হিসেবে বদলি হলে পদটি শূন্য হয়। গত ২ সেপ্টেম্বর বেগম মমতাজ পারভীন কুষ্টিয়া থেকে বদলি হয়ে চুয়াডাঙ্গার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে যোগদান করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.