সিলেটে হোটেল কক্ষে পিতা-মেয়ের লাশ

স্টাফ রিপোর্টার: সিলেট শহরের দরগা গেট এলাকার একটি হোটেল কক্ষে দু বছর বয়সী মেয়েকে হত্যার পর এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। সিলেট কোতোয়ালী থানার ওসি নাসিরউদ্দিন আহমেদ জানান, গতকাল বুধবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে হযরত শাহজালালের (র) মাজার হোটেল আল আকসায় এ ঘটনা ঘটে। হোটেল কর্তৃপক্ষ বলছে, কুমিল্লার বাসিন্দা আলিমুল্লাহ (৩০) ও তার স্ত্রী ফাতেমা আফরীন (২৭) তাদের দু বছর বয়সী মেয়ে সাদিয়া আফরীনকে নিয়ে ভোর ৬টার দিকে তৃতীয় তলার ৩৫ নম্বর কক্ষে ওঠেন। এর দু ঘণ্টার মাথায় আলিমুল্লাহ প্রথমে ব্লেড দিয়ে মেয়ের গলা কেটে পরে একইভাবে নিজেও আত্মহত্যা করেন বলে পুলিশের কাছে দাবি করেছেন ফাতেমা।  তিনি বলছেন, তার স্বামী কিছুটা অপ্রকৃতিস্থ ছিলেন। কুমিল্লা থেকে তারা বেড়াতে সিলেটে এসেছেন। ওই কক্ষ থেকে দুটি রক্তাক্ত ব্লেড উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

হোটেলের ম্যানেজার হুমায়ুন কবির জানান, সকাল সোয়া ৮টার দিকে ফাতেমা হঠাত তৃতীয় তলা থেকে দৌঁড়ে নেমে এসে বলেন, তার স্বামী তাদের মেয়েকে ‘মেরে ফেলছে’। ফাতেমা সাহায্য চাওয়ায় লোকজন নিয়ে তৃতীয় তলায় গিয়ে ওই কক্ষটি ভেতর থেকে বন্ধ পান হোটেল ম্যানেজার। পাশের জানালায় গিয়ে তারা দেখতে পান আলিমুল্লাহ গ্রিল ধরে ঝাঁকাচ্ছেন। হুমায়ুন কবির বলেন, এরপর আমি দ্রুত নিচে নেমে থানায় ফোন দিই। আবার উপরে উঠে শুনি সেও নিজের গলায় পোঁচ দিয়ে লুটিয়ে পড়েছে। এরপর সকাল ১০টার পর কতোয়ালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দরজা খুলে ভেতরে ঢুকে পিতা ও মেয়ের রক্তাক্ত লাশ পায়।

ওসি নাসিরউদ্দিন আহমেদ বলেন, ফাতেমাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তিনি বলছেন, তার স্বামী মানসিকভাবে সুস্থ ছিলেন না। তার কথায় মনে হয়েছে, আলিমুল্লাহ মেয়েকে খুন করার পর নিজেও আত্মহত্যা করেছেন। ওই হোটেল কক্ষ থেকে আলামত সংগ্রহের পর লাশ সিলেট মেডিকেলের মর্গে পাঠানো হবে বলে জানান ওসি।

Leave a comment

Your email address will not be published.