শিশু চুরি করে ঢাকায় পাড়ি : কোচযাত্রীদের সহযোগিতায় দু নারী পাকড়াও

 12স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা থেকে ১২ দিনের নবজাতক চুরি করে ঢাকার পথে পাড়ি জমালেও কোচযাত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতায় দু নারী পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। অবশ্য গতরাতে গোয়ালন্দ থেকে শিশুসহ দু নারীকে আটক করে চুয়াডাঙ্গায় নেয়া হলেও মধ্যরাতে পুলিশ বিস্তারিত তথ্য দিতে অসহযোগিতা করে।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা হকপাড়ার কাশেমের স্ত্রী সদর হাসপাতাল থেকে এক শিশু চুরি করে। অবশ্য কেউ কেউ বলেছে, নবজাতকের মা দরিদ্র হওয়ায় এক নারীকে দিয়ে যায়। সেই নারী কাশেমের স্ত্রীর নিকট বিক্রি করে। এর পর ১২ দিনের শিশু ঢাকায় নেয়া হচ্ছিলো। কোচের যাত্রী ও কোচের সুপারভাইজারসহ সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতায় শেষ পর্যন্ত শিশু উদ্ধার হয়েছে। দু নারীকে পুলিশ ধরতে পেরেছে। আজ বিস্তারিত জানা যাবে।

কোচ যাত্রীসহ সংশ্লিষ্টসূত্র বলেছে, দু নারী চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্সযোগে দু নারী এক শিশুকে নিয়ে ঢাকার পথে পাড়ি জমায়। কোচ যাত্রীদের মধ্যে সন্দেহ দানা বাধে। এক পর্যায়ে হেমায়েতপুর থেকে ফিরতি কোচে তুলে দেয়া হয় দু নারীসহ চুরি হওয়া শিশুর। বিষয়টি চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় জানানো হয়। শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ গাড়ি নিয়ে ছুটে যান গোয়ালন্দে। কোচ থেকে দু নারীকে আটক করার পাশাপাশি শিশুকে উদ্ধার করেন। চুয়াডাঙ্গায় ফিরে রহস্যজনক কারণে দু নারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গড়িমসি শুরু হয় বলে গুঞ্জন ওঠে। এক কমিশনারের জোর তদবিরে ঘটনাটি ভিন্নখাতে নেয়ার পাঁয়তারা চালতে থাকে। আড়ালে অর্থবাণিজ্য হচ্ছে বলে গুঞ্জন ওঠে। রাত সাড়ে তিনটার দিকে থানায় নেয়া হয় দু নারীকে। এর আগে পৌর কাউন্সিলরের হেফাজতে ছেড়ে দেয়ার পাঁয়তারা চলতে থাকে বলে জানা যায়। অবশ্য এসব অভিযোগের সত্যতা নেই বলে দাবি করে চুয়াডাঙ্গা শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবুল খায়েরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শিশু উদ্ধার করা হয়েছে। দু নারীকে গ্রেফতার করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা কাস্টডিতে রাখা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.