ডিসি-এসপির পর গাইবান্ধার চার ইউএনও প্রত্যাহার

স্টাফ রিপোর্টার: ডিসি-এসপির পর গাইবান্ধা জেলার চার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) গতকাল মঙ্গলবার প্রত্যাহার করা হয়েছে।

যে চার ইউএনওকে প্রত্যাহার করা হয়েছে তারা হলেন, গোবিন্দগঞ্জের আশরাফুজ্জামান, পলাশবাড়ির তোফাজ্জল হোসেন, সাদুল্যাপুরের ফরহাদ হোসেন ও সুন্দরগঞ্জের আহসান হাবীব। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলার কারণ দেখিয়ে তাদের প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানা গেছে। গত সোমবার গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক জহুরুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার (এসপি) সাজিদ হোসেনকে প্রত্যাহার করে নির্বাচন কমিশন।
এ ব্যাপারে গাইবান্ধার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, প্রত্যাহার নয়, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার দিলওয়ার বখসের নির্দেশে তাদের বদলি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত রোববার (৫ জানুয়ারি) সংসদ নির্বাচনে সারাদেশে মোট আটটি আসনে ফলাফল স্থগিত থাকে। এর মধ্যে গাইবান্ধা জেলার তিনটি আসনের ২০৬টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়। এগুলো হলো গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের ১০৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ৫৪টি, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ি) আসনের ১৩০টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮০টি ও গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনের ১৩০টি কেন্দ্রের মধ্যে ৭২টি। ভোটকেন্দ্রে কর্মকর্তাদের ওপর হামলা, ব্যালট পেপার ছিনতাই ও পুড়িয়ে দেয়া, সংঘর্ষ এবং বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে ব্যালট পেপার ও নির্বাচনী সামগ্রী না পৌঁছুনোর কারণে এসব কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ সম্ভব হয়নি।

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পুলিশের স্ত্রী-কন্যা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার: বান্দরবানে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ডিবি পুলিশের স্ত্রী-কন্যা নিহত হয়েছে। এ সময় ১২টি বসতঘর পুড়ে যায়। দমকল বাহিনী ও স্থানীয়রা জানান, গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বান্দরবান শহরের সেনা ব্রিগেড সংলগ্ন এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মূহুর্তের মধ্যে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ঘরের মধ্যে আটকা পড়ে বান্দরবান ডিবি পুলিশের কনেস্টেবল নুরুল ইসলাম মুন্নার স্ত্রী আকলিমা আক্তার আঁখি (২৭) ও মেয়ে মেঘা আক্তার (৩) আগুনে সর্ম্পূণ দগ্ধ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *