জীবননগর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসক সঙ্কট চরমে : স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সঙ্কটের কারণে স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত হচ্ছে। এ উপজেলায় ২ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় মাত্র ৪ জন ডাক্তার নিয়োজিত রয়েছেন। ৩১ শয্যা থেকে সদ্য উন্নিত হওয়া ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সঙ্কটের মধ্যে চলছে চিকিৎসসেবা।
হাসপাতালসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটিতে ১৫জন চিকিৎসকের স্থলে কর্মরত রয়েছেন মাত্র ৪জন চিকিৎসক। এদের মধ্যে ডা. রফিকুল ইসলাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন। ডা. হেলেনা আক্তার নিপা মেডিকেল অফিসার, ডা. মাহমুদ বিন হেদায়েত সেতু আবাসিক মেডিকেল অফিসার এবং ডা. রফিকুল ইসলাম জুনিয়র কনসালটেন্ট সার্জারির দায়িত্বে রয়েছেন। এর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম প্রশাসনিক কাজে নিয়োজিত থাকায় তার পক্ষে বর্হিবিভাগে রোগী দেখা সম্ভব হয় না। এছাড়া হাসপাতালটিতে তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী পদে ৬০ জনের স্থলে আছে ৪৮জন, চতুর্থ শ্রেণীর আয়া, ওয়ার্ডবয় ও সুইপার পদে ২১জনের স্থলে আছে ১৬ জন।
এ ব্যাপারে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. রফিকুল ইসলামের সাথে চিকিৎসক সঙ্কটের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এখনও ৩১ শয্যার কার্যক্রম চলছে। ইতোমধ্যে ৫০ শয্যার অবকাঠামো হলেও এখনও পরিপূর্ণভাবে সরঞ্জামাদি ও লিখিত অনুমোদন আসেনি। হাসপাতালে প্রতিদিন বর্হিবিভাগে রোগী দেখা হয় প্রায় ৪শ’ থেকে ৫শ’ জন। এখানে ১৫জন চিকিৎসক দরকার, আর আছে মাত্র ৪জন। চিকিৎসক সঙ্কটের বিষয়টি সিভিল সার্জনকে জানানো হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. খাইরুল আলমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বদলি জনিত কারণে চিকিৎসক সঙ্কটে পড়েছে হাসপাতালটি। তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে চিকিৎসক সঙ্কট নিরসনের চেষ্টা করা হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *