গাংনীর দিগলকান্দি গুচ্ছগ্রামে ভাঙচুর ঘটনা : মামলা না নেয়ায় মহিলা এমপির কাছে অভিযোগ

 

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার দিগলকান্দি গুচ্ছগ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় বাড়িঘর, ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি সেলিনা আখতার বানু। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর পরিদর্শন করেন তিনি। এসময় দিগলকান্দি গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ উত্থাপন করেন কচুইখালী গ্রাম পক্ষের লোকজন।

হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত সকমান আলী, রাজিব আহম্মেদ, মোছা মিয়া, হামিদুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, সাইদুর রহমান ফকির, রিপন হোসেন, এজের আলী, আবুল কাশেম, আরশাদ আলী, হাসিবুল ইসলামসহ হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর পরিদর্শন করেন মহিলা এমপি সেলিনা আখতার বানু। এসময় ভুক্তভোগীরা এমপির কাছে অভিযোগ করেনগুচ্ছগ্রামে বসবাসকার কচুইখালী গ্রামের লোকজন ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। দিঘলকান্দি গ্রামের লোকজন তাদের বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে। এতে প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এরপরেও থানায় মামলা নেয়নি। উল্টো হামলাকালীদের দায়ের করা মামলায় কচুইখালী গ্রামের লোকজনকে ধরে আদালতে প্রেরণ করেছে।

কচুইখালী গ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি খোকন অভিযোগ করেন, থানায় আটক গ্রামের লোকজনকে দেখতে গেলে পুলিশ তাকেও আটক করে আদালতে প্রেরণ করেন। বর্তমানে তারা জামিন পেলেও পুলিশের গ্রেফতার অভিযানে তারা বাড়িতে বসবাস করতে পারছেন না। এসময় ওই গ্রামের নারী-পুরুষ কান্নায় ভেঙে পড়েন।

ভূক্তভোগীদের অভিযোগ শুনে এমপি সেলিনা আখতার বানু বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। একই সাথে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দেকে বিষয়টি অবহিত করে অভিযোগের বিষয়ে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এসময় তিনি কিছু চাল-ডাল বিতরণ করেন। পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন ধানখোলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম সরওয়ার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আব্দুস সালাম, ধানখোলা ইউপি আওয়ামী লীগের (খ) সভাপতি আলী আজগর, জেলা যুবলীগের সহসভাপতি সবুক্তগীন মাহমুদ পলাশ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব হোসেন, গাংনী পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাবীবপ্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *