ম্যানিংয়ের ৩৫ বছর কারাদণ্ড

মাথাভাঙ্গা মনিটর: সাড়া জাগানো ওয়েবসাইট উইকিলিকসে রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য ফাঁস করার দায়ে ব্রিটিশ সেনা ব্র্যাডলি ম্যানিংকে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। গতকাল বুধবার রাষ্ট্রদ্রোহসহ ২০টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে এ কারাদণ্ড দেন যুক্তরাষ্ট্রের এক সামরিক আদালত। রায় প্রদানকালে ম্যানিংকে কোনো ধরনের কথা বলার সুযোগ দেয়া হয়নি। রায় প্রদানের পরপরই দ্রুত তাকে আদালতের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় কয়েকজন দর্শক ম্যানিংয়ের সমর্থনে চিৎকার করে। ম্যানিং সাড়ে তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে আটক থাকায় এ সময়টি তার দণ্ডাদেশ থেকে বাদ যাবে। ম্যানিংয়ের কাছ থেকে পাওয়া নথিপত্র জুলিয়ান অ্যাস্যাঞ্জ তার ওয়েবসাইট উইকিলিকসে প্রকাশ করলে সারাবিশ্বে তোলপাড় পড়ে যায়। ২০১০ সালে ইরাকে দায়িত্ব পালনের সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সাত লাখেরও বেশি গোপন নথি, যুদ্ধক্ষেত্রের ভিডিও ও কূটনৈতিক বার্তা উইকিলিকসের কাছে তুলে দেন। ম্যানিংয়ের মাধ্যমে পাওয়া বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর অভিযানের একটি ভিডিও দেখে বিশ্বের অনেকেই মর্মাহত হন। ২০০৭ সালে ধারণ করা ওই গোপন ভিডিওতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি অ্যাপাচি হেলিকপ্টার থেকে বাগদাদে সন্দেভাজন বিদ্রোহীদের ওপর গুলিবর্ষণ করতে দেখা যায়। অ্যাপাচি হেলিকপ্টার থেকে করা ওই গুলিবর্ষণে দু সাংবাদিকসহ ১২ জন নিরাপরাধ মানুষ নিহত হয়েছিলেন। ম্যানিংয়ের তুলে দেয়া গোপন নথি ইত্যাদি প্রকাশ করে উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ আন্তর্জাতিকভাবে ব্যাপক আলোচিত হয়ে ওঠেন। ম্যানিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়, তিনি যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা কার্যক্রমকে ঝুঁকিতে ফেলে দিয়েছেন। রাষ্ট্রের শত্রুদের সহায়তা, গোয়েন্দাগিরি ও চুরির অভিযোগও আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *