বিশ্ব টুকিটাকি : হাতির ভয়ে গাছের ওপর বসবাস

নিউইয়র্কে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি নিহত
মাথাভাঙ্গা মনিটর: যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে সড়ক দুর্ঘটনায় তানভির আহমেদ নামের এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় সোমবার দিনগত রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিট) এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার সময় ২৪ আটলান্টিক সিটির হাইওয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তানভির। এ সময় একটি প্রাইভেটকার এসে তাকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। ৫ মাস আগে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানো তানভিরের গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলায়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ঢাকার রামপুরায় বসবাস করছিলেন। প্রবাসী স্ত্রী মুশতারী বেগমের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের ২২ আগস্ট ইমিগ্র্যান্ট ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে যান তানভির। নিহত তানভিরের এক মেয়ে রয়েছে।

ভারতের পাসপোর্ট অফিসে বাংলাদেশি গ্রেফতার
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের পাটনা পাসপোর্ট অফিস থেকে এক বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ভুয়া আবাসিক ঠিকানা দিয়ে পাসপোর্ট তৈরির চেষ্টার অভিযোগে স্থানীয় সময় শুক্রবার তাকে গ্রেফতার করা হয়। গতকাল শনিবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় এক প্রতিনিধির সহায়তায় আব্দুল মান্নান (৩৮) নামের ওই ব্যক্তি ভুয়া পাসপোর্ট তৈরি করার চেষ্টা করছিলেন। ভুয়া পাসপোর্ট তৈরির কাজে অফিসের কোনো ব্যক্তি জড়িত আছে কি-না সেটি খতিয়ে দেখছে পাটনা পুলিশ। আবদুল মান্নানের দাবি, তিনি নওয়াদার বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার অনলাইনের মাধ্যমে আশ্বিনা-দিঘা রোডের আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে আবদেন করেন তিনি।

জঙ্গি পাচার চক্রের সদস্য সন্দেহে দিল্লিতে দু বাংলাদেশি গ্রেফতার
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের দিল্লিতে একটি আন্তর্জাতিক মানব পাচারকারী চক্রের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। এর সাথে সংশ্লিষ্ট সন্দেহে দু বাংলাদেশি নাগরিকসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। চক্রটি ভুয়া ভারতীয় পাসপোর্ট ও ভিসার মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জন্য জঙ্গি সরবরাহ করতো। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ, পাচারকারী চক্রটি বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গাদের মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে নিয়ে গিয়ে সিরিয়া ও ইরাকে আইএসের হয়ে যুদ্ধ করতে বাধ্য করতো। আটককৃত দু বাংলাদেশির নাম শওকত আলী ও সুলেমান। একজন উচ্চ পদস্থ পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত প্রায় ৫শ’ মানুষকে পাচার করেছে চক্রটি। অপর এক পুলিশ কর্মকর্তা সুন্দরি নন্দা জানিয়েছেন, গত দু বছর থেকে এরা মানুষ পাচার করে আসছে। প্রতি মাসে ২০ থেকে ২৫ জন মানুষকে তারা মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে নিয়ে যেতো। এদের প্রত্যেক জনের জন্য ২ লাখ টাকা পেতো আন্তর্জাতিক এই চক্র।

বড় ভূমিকম্পে ১০ লক্ষাধিক প্রাণহানির আশঙ্কা
মাথাভাঙ্গা মনিটর: বিশ্বের যে কোনো স্থানে শিগগিরই বড় ধরনের ভূমিকম্প হতে পারে। আর এই ভূমিকম্প ১০ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হতে পারে বলে জানিয়েছেন একজন বিখ্যাত ব্রিটিশ ভূতাত্ত্বিক গবেষক। তবে ভূমিকম্পটি কোথায় হবে তা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা একমত নন। কেউ বলেছেন ভূমিকম্প ঘটবে উত্তর আমেরিকা মহাদেশের কোনো স্থানে। নিউইয়র্ক শহরেও ভূমিকম্প হতে পারে। আবার অনেকে বলছেন, ইরানের তেহরান ও নেপালের কোনো স্থানে ভূমিকম্পের বড় আশঙ্কা আছে। আবার অনেক ভূতাত্ত্বিকের মতে, বড় ভূমিকম্পে সুনামি দেখা দিতে পারে। এই সুনামি ঘটতে পারে আমেরিকা মহাদেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল, অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায়। বেশ কিছুদিন আগেই ভূতাত্ত্বিকরা জানিয়েছিলেন, উত্তর আমেরিকায় পশ্চিম উপকূলে বড় ধরনের ভূমিকম্পের আশঙ্কা আছে। এই দুর্যোগে অঞ্চলটির বড় একটি অংশ ধ্বংস হতে পারে। এই গবেষকদের মতে, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে উত্তর আমেরিকার পশ্চিম উপকূলে এক হাজারের বেশি ভূমিকম্প হয়েছে। এই ভূমিকম্পের সর্বনিম্নটি ছিলো রিখটার স্কেলে ৪ দশমিক ৪ মাত্রার। মাত্র দুদিন আগেও ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেস ৪ দশমিক ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয়েছে।

হাতির ভয়ে গাছের ওপর বসবাস
মাথাভাঙ্গা মনিটর: মিয়ানমারে বন্য হাতির হাত থেকে বাঁচতে গাছের ওপর তৈরি বাড়িতে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন একটি গ্রামের বাসিন্দারা। খাবারের সন্ধানে গ্রামটিতে প্রায়ই বন্য হাতির পাল হানা দেয়। এতে হাতির পায়ে চাপা পড়ার ভয়ে গাছের ওপর আশ্রয় নিয়েছেন লোকজন। হাতির তাণ্ডবের কারণে কিয়াত চুয়াং নামের ওই গ্রামের বাসিন্দারা উঁচু স্থানে কাঠ ও বাঁশের ঘর নির্মাণে বাধ্য হয়েছেন। গ্রামবাসীরা জানান, হাতির পাল তাদের শস্যক্ষেত ও বাড়িঘর ধ্বংস করেছে। হাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে বেশ কয়েকজন মারা গেছেন। ওই গ্রামেরই এক বাসিন্দা সান লুইন বলেন, নিরাপত্তার জন্য আমাদের ঘরগুলোকে গাছের ওপর নিয়ে যেতে হয়েছে। হাতির পাল কাছাকাছি চলে এলে গাছের কয়েক মিটার উঁচুতে তৈরি ঘরে উঠে পড়েন লোকজন

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *