তেল আমদানিতে বাংলাদেশকে ১২০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইডিবি

স্টাফ রিপোর্টার: তেল আমদানিতে এ বছর বাংলাদেশকে ১২০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে ইসলামিক উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি)। গত বছর যে সুদে তারা ঋণ দিয়েছিলো এবার তার থেকে সুদের হার কম। গতকাল এ খবর দিয়েছে মালয়েশিয়ার ইংরেজি দৈনিক একটি পত্রিকা। এতে বলা হয়, যে সব দেশ বাংলাদেশের প্রধান তেল আমদানিকারক তার মধ্যে মালয়েশিয়া অন্যতম। এ তেল আমদানি করতে এ বছর আইডিবি শতকরা ৪ দশমিক ৫০ হারে ঋণ দিচ্ছে। গত বছর এ হার ছিলো ৪ দশমিক ৬৫ ভাগ। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের এক সিনিয়র কর্মকর্তা এ কথা বলেছেন। জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর প্রায় ৫৫ লাখ টন তেল আমদানি করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু এ বছর তা বেড়ে ৫৭ লাখ টন হতে পারে। তেল আমদানি করতে বাংলাদেশকে গত বছর ২২০ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছিলো আইডিবি। বাংলাদেশ যেসব সংস্থার কাছ থেকে তেল কিনে থাকে তার মধ্যে রয়েছে কুয়েত পেট্রোলিয়াম করপোরেশন, মালয়েশিয়ার পেট্রোনাস, এমিরেটস ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানি, ফিলিপাইনস ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানি, ভিয়েতনামের পেট্রোলিমেস্‌স, ইন্দোনেশিয়ার বুমি সিয়াক পুসাকো, মালদ্বীপের ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানি ও ইউনিপেক। রিপোর্টে আরও বলা হয়, আবু ধাবি ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানির কাছ থেকে এ বছর ৭ লাখ মারবান অশোধিত তেল কিনছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন। সৌদি আরামকোর কাছ থেকে আরব লাইট অশোধিত ৬ লাখ টন তেল কিনছে বাংলাদেশ। গত বছর শুরুর তুলনায় এটা শতকরা ৮ ভাগেরও বেশি। বিদ্যুত ঘাটতি মেটানোর জন্য বাংলাদেশের অনেক বিদ্যুত উৎপাদন কারখানা চলছে তেলের ওপর ভিত্তি করে। প্রাকৃতিক গ্যাসের স্বল্পতার জন্যও জ্বালানি সঙ্কট দ্রুতগতিতে বাড়ছে। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনে বড় অঙ্কের অর্থ ভর্তুকি দেয় সরকার। এ সংস্থা আমদানি মূল্যের চেয়ে কম দামে স্থানীয় বাজারে তেল বিক্রি করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *