চুয়াডাঙ্গা কাইয়াতপাড়া-নারায়নকান্দী বাঁওড়ে ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা

বুবুজান নাও বাওয়া মদ্দা লোকের কাম, মদ্দ লোকের কামরে জোয়ান পোলার কাম…………

 

কাইয়াতপাড়া-নারায়নকান্দী বাওড় থেকে ফিরে খাইরুজ্জামান সেতু/জিয়াউর রহমান জিয়া/উজ্জল মাসুদ: হৈয়া হো হৈয়া হো সুরে শনিবার মুখরিত হয়ে উঠেছিলো চুয়াডাঙ্গা কাইয়াতপাড়া-নারায়নকান্দী বাঁওড়ের দু পাশ। সবার কণ্ঠে ফজলুর রহমান বাবুর গাওয়া জনপ্রিয় লোকগান ‘‍‌‌ওলো বুবুজান নাও বাওয়া মদ্দা লোকের কাম, ওলো বুবুজান নাও বাওয়া মদ্দ লোকের কাম,মদ্দ লোকের কামরে জোয়ান পোলার কাম…………।’

রঙ-বেরঙের বাহারি নৌকা, মাইক, পোশাক, নাচ-গান আর মাঝি-মাল্লার হই-হুল্লোরে বাওড়ের পাড় ছিলো উৎসবমুখর। দূর-দূরান্ত থেকে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে হাজার হাজার মানুষ ছুটে এসেছিলেন কাইয়াতপাড়া-নারায়নকন্দী বাঁওড়ের পাড়ে। শুধু দুই তীরই নয়, মানুষের ভিড়ে বাওড়ের আশেপাশে থাকা গাছও সেজেছিলো মনুষ্য গাছে। গতকাল শনিবার দুপুর থেকে শুরু করে বিকেল পর্যন্ত এমন চিত্র ছিলো বাওড়ের আশেপাশে এলাকার গ্রামগুলোতেও।

বাংলার গ্রামীণ ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে ব্যারিস্ট্রার বাদল রশিদ স্মৃতি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা প্রতি বারের মতো এবারও আয়োজন করে রামদিয়া বাজার কমিটি। আব্দুল আলীম, এখলাসুর রাহমান মিঠু, অনিক আহম্মেদ, জিয়াউর রহমান জিয়া ও নিউটনসহ এলাকার উঠতি বয়সের যুবকদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এবারের নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় ৮টি নৌকা অংশ নেয়। ভাগ করা হয় ৪টি গ্রুপে। প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চুয়াডাঙ্গা জেলাসহ পাশ্ববর্তী জেলার বিভিন্ন গ্রামের প্রতিযোগিরা অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা ৮টি দলের প্রথম স্থান দখল ঝিনাইদহ হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ফতেপুর গ্রামের লিয়াকত আলীর দল ও দ্বিতীয় স্থান দখল করেন চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলার কায়েতপাড়ার জমসের আলীর দল। প্রথম স্থান অর্জন কারীকে বড় ছাগল ও দ্বিতীয় স্থান দখলকারীকে ছোট ছাগল।

চন্দ্র সূর্য বান্ধা আছে নাওয়েরই আগায়, দূরবীনে দেখিয়া পথ মাঝি-মাল্লায় বাউল শাহ আবদুল করিমের গানের দর্শন যাই হোক বাঁওড়ের তীরে বিশের ওপরে নৌকা তার গান পূর্ণভাবে ধারণ করে হাজারো দর্শক মনকে অফুরান আনন্দ দিয়েছে। স্মরণ করিয়ে দিয়েছে বাঙালি জাতীর গৌরবের ঐতিহ্যকে। অনুষ্ঠানের আরো পূর্নতা পায় চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিনের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় প্রতিযোগিতার পায় প্রাণ চাঞ্চল্যতা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ব্যারিস্ট্রার বাদল রশিদের স্মৃতিকে ধরে রাখতে এ প্রতিযোগিতায় অনুষ্ঠিত হয়। কায়েতপাড়া জামে মসজিদের সভাপতি হাজি মনির হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলার খাসকররা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তফিজুর রহমান রুন্নু। বিশেষ অতিথি ছিলেন মোমিনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কামাল মল্লিক, হফিজ উদ্দীন, লাভলুর রহমানসহ অনেকে।

Leave a comment

Your email address will not be published.