আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে রেলস্টেশনের জমি দখল করে অবৈধভাবে গড়ে উঠছে পাকা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি : আলমডাঙ্গার জেহালা ইউনিয়নের মুন্সিগঞ্জ রেলস্টেশনের জমি অবৈধভাবে দখল করে একের পর এক গড়ে উঠছে পাকা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। প্রথমে জমি দখল করে অস্থায়ীভাবে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান শুরু করলেও পরে পাকা পোক্তভাবে স্থাপনা গড়ে তুলছে দখলকারীরা। স্থানীয়দের অনেকে এ অভিযোগ করে বলেছেন, অজ্ঞাত কারণে রেলওয়ের কর্মকর্তারা এদিকে নজর দেন না।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহালা ইউনিয়নের মুন্সিগঞ্জ রেলস্টেশনের দু ধারের জমিতে একর পর এক অবৈধভাবে গড়ে উঠছে দোকান ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। দখলকারীরা প্রথমে ঝুপড়ি দোকান করে, পরে পাকা পোক্তভাবে ইট-সিমেন্ট দিয়ে গড়ে তুলছে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। অনেকেই আবার রেলওয়ের জমি কৃষি লাইসেন্স নিয়ে পাকা দোকান করেছে। কিছুদিন আগে রেলওয়ের একটি গুমটি ঘর তৈরি করে কর্তৃপক্ষ। অবৈধ দখলকারীদের কারণে জমি না পেয়ে নির্ধারিত স্থানে বিল্ডিং না করে অন্যত্র নির্মাণ করে। মুন্সিগঞ্জ রেলস্টেশনের রেল সড়কের দু পাশে অনেক আগেই দখল হলেও বাকি ছিলো রেলগেট। গতকাল থেকে রেল সড়কের পাশের এক ব্যবসায়ী নতুন করে রেলগেটের পাশে স্টেশনের প্লাটফর্ম ঘেঁষে নতুন করে বিল্ডিং নির্মাণ করছে। ফলে স্টেশনের অফিস রুম আটকে যাচ্ছে। স্টেশনে নেই রেল আসার সিগনাল। স্টেশনের দায়িত্বরত পয়েসম্যানদের রেল দেখে গেট ফেলতে হয়। নতুন করে দোকান নির্মাণ করাই রেল সড়কের গেটে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়েছে। এলাকাবাসী জানায়, একের পর এক অবৈধভাবে রেলওয়ের জমি দখল করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও কর্তৃপক্ষ অজ্ঞাত কারণে কিছুই বলে না। এ ব্যাপারে তদন্ত পূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা নিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে এলাকাবাসী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *