রেলওয়ের রুগ্ন দশার জন্য সবচেয়ে বেশি দায়ী দুর্নীতি

 

বিশ্বের অনেক দেশে পরিবহন ও যোগাযোগের অন্যতম প্রধান মাধ্যমরেল। জনপ্রিয় তো বটেই। রেল অর্থনীতির চাকাকে বদলে দেয়।রেল যোগাযোগের উন্নয়নের মাধ্যমে আমাদের দেশেও তেমনটি ঘটানো সম্ভব। কিন্তু দুর্নীতি আর দায়িত্বশীলদের অদুরদর্শিতার কারণে রেলওয়ের রুগ্নদশা।

লোকবলের অভাব ও দীর্ঘদিন নিয়োগ বন্ধ থাকায় রেলওয়ের ১৫৭টি স্টেশনের কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক।মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তরে এ তথ্য জানান তিনি।অপরদিকে গতকাল দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মালবাহী ট্রেনের ইঞ্জিন থেকে তেল চুরির সময় চুয়াডাঙ্গা জীবননগর আনছারবাড়িয়া স্টেশন এলাকার সচেতনমহল একজনকে ধরে পুলিশে দিয়েছে। মন্ত্রীর মন্তব্য, আর মাঠ পর্যায়ে ইঞ্জিন থেকে তেল চুরির ঘটনা। এর পরও কি বুঝতে বাকি থাকে বাংলাদেশ রেলওয়ের বর্তমান দশা।

নিরাপদ,আরামদায়ক স্থল পরিবহন,সাশ্রয়ী ও পরিবেশবান্ধব যোগাযোগ মাধ্যমহিসেবে বহুকাল থেকে রেল তার অবস্থান ধরে রেখেছে। মূলত গণপরিবহন হিসেবেরেলের গ্রহণযোগ্যতা সব মহলে স্বীকৃত। মানুষ তাদের নিরাপদ বাহন হিসেবে রেলকেবেছে নিয়েছে। রেল যোগাযোগ নানা কারণে আমাদের দেশে সে রকম জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে পারেনি। সরকার রেলকে ঘিরে ২০ বছর মেয়াদী একটিমহাপরিকল্পনা গ্রহণের কথা যখন জানাচ্ছে তখনও মালবহন করা রেলের ইঞ্জিন থেকে তেল চুরি হয়। রেলওয়ের সম্পদ সম্পত্তি বেদখলের বহর দেখে মনেই হয় না রেলওয়ে প্রশাসন আছে।

দেশে রেলের ঔপনিবেশিক আমলের জীর্ণশীর্ণ চেহারাবদলে দিতে সরকার ৩১ হাজার ১শ২২ কোটিরও বেশি টাকা ব্যয়ে নতুন ও সংশোধিতসহমোট ৭১টি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। স্বাধীনতার পর এ যাবত রেল খাতের উন্নয়নে এতবড় প্রকল্প আর কোন সরকার নেয়নি। যতো বড় প্রকল্পই হাতে নেয়া হোক না কেন, চুরি, দুনীতিমুক্ত করতে না পারলে যাত্রী সাধারণের বৃহত্তর স্বার্থ সংরক্ষণ হবে না। যদিও ৭১টি প্রকল্প মূলত যাত্রী সাধারণের সুবিধার কথা বিবেচনায় রেখে বর্তমান সরকাররেল খাতের এ সর্বোচ্চ উন্নয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ প্রকল্পের সঠিক বাস্তবায়ন কাম্য।

গণপরিবহন হিসেবে রেলকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতেপারলে রেল আর লোকসানী প্রতিষ্ঠান থাকবে না বরং রেল লাভজনক প্রতিষ্ঠানেপরিণত হবে।রেল যোগাযোগ যত সহজ, নিরাপদ আর সাশ্রয়ী হবে ততই মানুষের মঙ্গল, দেশের মঙ্গল। লোকবলের অভাব দ্রুত দূর করতে হবে। দূর করতে হবে দুর্নীতি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *