খোশ আমদেদ মাহে রমজান

প্রফেসর . মুহাম্মদ ইউসুফ আলী: আজ ১৮ রমজান। অশেষ পূণ্যময় বৈশিষ্টের আধার মাহে রমজানের মাগফেরাতের দশকের আজ অষ্টম দিন। রোজার অন্যতম উদ্দেশ্য হলো তাকওয়া বা পরহেজগারী অর্জন করা। মহান আল্লাহ জাল্লাশানুহ্ এরশাদ করেন, হে ইমানদারগণ! তোমাদের ওপর রোজা ফরজ করা হয়েছে যেমন তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপরও ফরজ করা হয়েছিলো যাতে তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পার (বাকারা: ১৮৩)। তাকওয়া এবং আল্লাহর ভয় যাবতীয় আমলের রুহ যা মানুষকে খারাপ কাজ থেকে বাঁচায়। তাকওয়া নির্ভর করে অন্তরের কোমলতা ও নির্মলতার ওপর। রোজার মাধ্যমে ভূখা থাকা সম্ভব হয় যা অন্তরের পরিচ্ছন্নতা, স্বভাবের তীক্ষ্ণতা ও অন্তর্দৃষ্টি হাসিলের কারণ হয়। রাসুলে আকরাম (সাঃ) এরশাদ করেন, তোমরা অন্তরকে কম হাসি ও কম তৃপ্তি দ্বারা পুনরুজ্জীবিত কর এবং পবিত্র কর ক্ষুধা দ্বারা। এতে তোমাদের অন্তর সাফ ও নরম হবে। হযরত ইবনে আব্বাসের রেওয়াতে রসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেন, যে পেট ভরে আহার করে ও বেশি নিদ্রা যায়, তার অন্তর কঠিন হয়ে যায়। রোজার মাধ্যমে অন্তরে নম্রতা আসে যা দ্বারা অন্তরে জিকিরের স্বাদ অনুভব করা যায়। অনেক সময় দেখা যায়, জিকির করলেও অন্তরে মজা পাওয়া যায় না। অথচ আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে বলেছেন, নিশ্চয় জিকিরের মধ্যেই রয়েছে অন্তরের প্রশান্তি। অন্তরে জিকিরের স্বাদ না পাওয়ার অন্যতম কারণ হলো পেটভর্তি থাকা। রোজার মাধ্যমে নফস যতোটুকু নম্র ও বশীভূত হয়, অন্য কোনো আমল দ্বারা ততোটুকু হয় না। তাছাড়া রোজার মাধ্যমে পরকালের আজাবের কথাও স্মরণ হয়। পবিত্র কোরআনে আছে, দোজখিরা প্রচণ্ড পিপাসা ও ক্ষুধার কারণে চিৎকার করতে থাকবে। তখন তাদের পানীয় হিসেবে প্রচণ্ড গরম পানি এবং খাদ্য হিসেবে কণ্টকযুক্ত বৃক্ষ দেয়া হবে। রোজার পিপাসা আমাদের কিয়ামতের মাঠের পিপাসা এবং রোজার ক্ষুধা আমাদের জাহান্নামীদের ক্ষুধার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। পরকালের আজাবের স্মরণ সমস্ত আমলের জান স্বরুপ। রোজার মাধ্যমে নিদ্রা দূর হয় এবং অধিক সময় জাগ্রত থাকা যায়। রোজার কারণে প্রসাব-পায়খানা এবং রান্নাবান্নার বাড়তি ঝামেলা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। ফলে বাড়তি সময়টুকু অতিরিক্ত ইবাদতে লাগানো যায়। এ কারণে দেখা যায়, ক্ষুধার্ত থাকা স্বত্বেও রোজার মাসে সবচেয়ে বেশি ইবাদত করা সম্ভব হয়। তাই আসুন, আমরা পবিত্র রোজার মাসে বেশি বেশি আল্লার  ইবাদতে সময় কাটাই এবং পরকালের পাথেয় সংগ্রহ করি। (লেখক: অধ্যাপক, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়)।

Leave a comment

Your email address will not be published.