বিশ্ব টুকিটাকি : লড়াইয়ে হার মেনে ইন্দোনেশিয়ার বৃক্ষমানবের মৃত্যু

হয়রানির শিকার ফ্রান্সের মুসলিমরা
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ফ্রান্সে জরুরি অবস্থার মধ্যে পুলিশরা সংখ্যালঘু মুসলিমদের শারীরিক ও মানসিকভাবে হয়রানি করেছে বলে দাবি করেছে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এবং অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। গত বুধবার প্রকাশিত গবেষণা রিপোর্টে তারা জানায়, হয়রানি থেকে ছাড় পায়নি শিশু কিংবা বৃদ্ধ কেউই। এই বিষয়টিকে মানবাধিকার লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করে সংস্থা দুটি। হয়রানির শিকাররা জানান, পুলিশরা তাদের বাড়ি, রেস্তোর এমনকি মসজিদে ঢুকে হয়রানি করেছে। তাদের আসবাব ভেঙেছে। শিশুদেরকে হুমকি দিয়েছে এমনকি কোরআন শরীফও মেঝেতে ছুড়ে ফেলার অভিযোগ করেছেন মুসলিমরা। শুধু এখানেই থেমে থাকেনি মুসলিমদের দুর্দশা। অনেকে শুধু মুসলিম হওয়ার কারণে চাকরিচ্যুত হয়েছেন। কারো বেতন কমেছে কেউবা শারীরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। নভেম্বরের ১৪ তারিখ থেকে দেশটিতে অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনী। দেশটির প্রেসিডেন্ট ফ্রাসোয়া ওলাদের ঘোষণা অনুযায়ী জরুরি অবস্থার মাঝে কারও বাড়িতে অভিযান চালাতে ওয়ারেন্টির প্রয়োজন হবে না। কিন্তু মানবাধিকার সংগঠনগুলোর দাবি অন্তত ৩ হাজার ২০০ অভিযানের মধ্যে খুবই অল্পসংখ্যক সাফল্য এসেছে।

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় সুপ্রিম কোর্টে রাহুল-সোনিয়া
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় দিল্লি হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেছেন রাহুল-সোনিয়া। ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় তাদের বিরুদ্ধে যে ফৌজদারি মামলা চলছে, তা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আগেই দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী। তবে তা আদালতে নাকচ হয়ে যায়। দিল্লি হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এবার সুপ্রিম কোটের দ্বারস্থ হলেন তারা। এই মর্মে আজ সর্বোচ্চ আদালতের স্পেশাল লিভ আবেদন দাখিল করেছেন তারা। কংগ্রেস সভানেত্রী ও সহসভাপতির আবেদন নাকচ করার প্রসঙ্গে দিল্লি হাইকোর্টের ব্যাখ্যা ছিলো, তাদের পক্ষে রায় দিলে তা পক্ষপাতদুষ্ট হিসেবে গণ্য হবে। সোনিয়া-রাহুলের পাশাপাশি পিটিশন দাখিল করেছেন শ্যাম পিত্রোদা ও সুমন দুবে। এর আগে দিল্লি হাইকোর্টে হাজিরা এড়ানোর যাবতীয় চেষ্টা বিফলে যায় সনিয়া-রাহুলের। বিজেপি নেতা সুব্র্রাহ্মণ্যম স্বামীর অভিযোগ ইয়ং ইন্ডিয়া লিমিটেডের সিংহভাগ শেয়ার গান্ধী পরিবারের। সোনিয়া, রাহুলের বিরুদ্ধে কাগজের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। ২০১৪ সালের অগাস্টে সোনিয়া ও রাহুলকে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ দেয় আদালত। ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী পাতিয়ালা হাউস কোর্টে নিঃশর্তে জামিন পেয়েছেন। মামলার পরবর্তী শুনানি হবে ২০ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায়। ন্যাশনাল হেরাল্ড অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে সোনিয়া ও রাহুল ছাড়াও কংগ্রেসের দুই শীর্ষ নেতাসহ প্রয়াত রাজীব গান্ধীর এক বন্ধুর বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন তামিলনাড়ুর রাজনীতিবিদ বিজেপি নেতা সুব্রাহ্মন্যম স্বামী।

লড়াইয়ে হার মেনে ইন্দোনেশিয়ার বৃক্ষমানবের মৃত্যু
মাথাভাঙ্গা মনিটর: কয়েকদিন ধরেই বাংলাদেশে আলোচনায় ‘বৃক্ষ মানব’ নামে পরিচিত এক ব্যক্তি। বিরল এ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিত্সার জন্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন চিকিত্সকরা। পৃথিবীর মাত্র তিনজনই মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে, জানা নেই কোনো স্থায়ী কার্যকরী চিকিৎসা। এরই মাঝে ‍এই রোগেই দীর্ঘদিন লড়াই করে মারা গেলেন ইন্দোনেশিয়ার বৃক্ষমানব। ডেডে কসওয়ারা নামের ৪২ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি গত শনিবারই হাসপাতালের বিছানায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। গত ৩ মাস ধরেই ডেডে হাসপাতালে লড়াই করছিলেন। কয়েক দশক ধরেই এই রোগে আক্রান্ত ছিলেন তিনি। কয়েক দফা অস্ত্রোপচার করেও থামানো সম্ভব হয়নি এই মরণব্যাধিকে। আর একটা সময় সে নিজেই হাল ছেড়ে দেয় বলে জানায় হাসপাতালের নার্স। তিনি বলেন, যখন কোনোকিছুই সফল হচ্ছিলো না তখন ডেডে ধূমপান শুরু করেন এবং বাঁচার আশা ছেড়ে দেন। অনেকেই তাকে ছেড়ে চলে যায় ‘অভিশপ্ত’ বলে। চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনও সম্ভব হচ্ছিলো না তার। এদিকে বাংলাদেশে এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিটির রক্ত এবং চামড়ার নমুনা আগামী সপ্তাহের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণাগারে পাঠানো সম্ভব হবে বলে চিকিত্সকরা আশাবাদী। এর পাশাপাশি বাংলাদেশেও তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা হবে। উভয় পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মূল চিকিত্সা শুরু হবে।

সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলায় ২১ বেসামরিক নিহত
মাথাভাঙ্গা মনিটর: সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলায় ৩ শিশুসহ অন্তত ২১ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে মানবাধিকার সংগঠন সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক এই সংগঠনটি জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার সিরিয়ার আলেপ্পো শহরে রুশ বিমান হামলায় ২১ জন নিহত হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে দাবি করে তারা জানায়, এ ঘটনায় আহতের সংখ্যাও অনেক।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *