৩০ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ মরুকরণের দিকে যাবে

0
33

 

স্টাফ রিপোর্টার: তিস্তা বাঁধ প্রতিরোধ করা না গেলে আগামী ৩০বছরের মধ্যে বাংলাদেশ মরুকরণের দিকে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিকপানি বিশেষজ্ঞ ড. এসআই খান। গতকাল শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্সইন্সটিটিউশনের সেমিনার রুমে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ওবাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) আয়োজিত তিস্তাসহ ৫৪টি অভিন্ন নদীরপানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে করণীয় নির্ধারণে পরামর্শ সভায় তিনি এ মন্তব্যকরেন।সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুলইসলাম সেলিমের সভাপতিত্বে পরামর্শ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাসদ সাধারণসম্পাদক খালেকুজ্জামান, সিপিবি সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জাফর আহমেদ, আবু সাঈদখান, প্রকৌশলী মু. এনামুল হক, স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.ফিরোজ আহমেদ, পানি বিশেষজ্ঞ মোস্তফা কামাল মজুমদার প্রমুখ।

ড.এসআই খান বলেন, এখনই টিপাইমুখতিস্তা বাঁধ প্রতিরোধ করা না গেলে এদেশবসবাসের অনুপযোগী হয়ে যাবে। দেশ মরুভূমি হয়ে যাবে।তিনি বলেন, গঙ্গাবাঁধের কারণে বছরে ৩০ হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশের ক্ষতি হচ্ছে। অথচ সরকারেরলোকজন বলেন, ভারত এমন কিছু করবে না যা আমাদের ক্ষতি করে। এ ৩০ হাজার কোটিটাকা কি ক্ষতি না?এ বিষয়ে জনগণকে সচেতন করে ঢাকায় বিশাল সমাবেশ করার জন্যরাজনৈতিক শক্তিগুলোর নিকট দাবি জানান তিনি।ড.খান বলেন, ভারত আমাদের ওপর পানি আগ্রাসন চালাচ্ছে, যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। এবিষয়ে আমাদের দেশের নাগরিকদের সচেতন হতে হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেজানাতে হবে। বিশ্ব বিবেককে জাগ্রত করতে হবে। তিনি একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনকরে একটি ডকুমেন্টারি  তৈরির অনুরোধ জানান। যে ডকুমেন্ট বিভিন্ন ভাষায়অনুবাদ করে সারাবিশ্বের কাছে ছড়িয়ে দিতে হবে বলেও তিনি মত দেন।
প্রকৌশলীমু. এনামুল হক বলেন, ভারত পানি দেয়ায় আমাদের ক্ষতি হচ্ছে এটা আমাদের সরকারবলে না। সরকারের মন্ত্রীরা শুধু বলেন, ভারত আমাদের পানি কম দিয়েছে কিন্তুএ পানি কম দেয়ার কারণে যে আমাদের ক্ষতি হচ্ছে এটা কেউ বলছে না। কারণ, আন্তর্জাতিক আইনে আছে বাঁধের ফলে অন্য দেশের ক্ষতি হয় এমন কিছু করা যাবেনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here