১৪ গাঁজা সেবিকে সেবনকারী সরঞ্জামসহ গ্রেফতার

চুয়াডাঙ্গা বড়সলুয়ায় কালুশাহ’র আখড়ায় পুলিশের অভিযান

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশ বড়সলুয়া গ্রামে কথিত কালুশাহ’র আখড়ায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়েছে। অভিযান চালিয়ে ১৪ গাঁজা সেবনকারীকে গাঁজা সেবনের সরঞ্জমসহ গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলাদায়ের পূর্বক চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোপর্দ করেছে। তবে এলাকাবাসী জানিয়েছে, দীর্ঘদিন থেকে ওই আখড়ায় গাঁজাসেবনের আসর চললেও তা ছিলো প্রশাসনের নজরের বাইরে।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই আমিরুল ইসলাম গতকাল রোববার রাত ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযান চালান তিতুদহ ইউনিয়নের বড়সলুয়া গ্রামের কথিত কালু শাহর আখড়ায়। এ সময় পুলিশ গাঁজা সেবনের সময় গাঁজাসেবনের সরঞ্জামসহ গ্রেফতার করেন গ্রামের আসাদ আলীর ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৪০), মফিজ উদ্দীনের ছেলে বিল্লাল হোসেন (৪৭), জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে কাজল হোসেন (২৮), আবুল কাশেমের ছেলে মাসুদ রানা (৪০), শাজাহান আলীর ছেলে রুহুল আমিন (৩৫), মিজানুর রহমানের ছেলে মাহাবুল ইসলাম (৪৫), মহতের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪৫), বিশারত আলীর ছেলে মোহেত আলী (৪০), করিম মালিথার ছেলে আব্দুর রহিম (৪৭), মোক্তার আলীর ছেলে সবুজ আলী (৩০), হিরাজ আলীর ছেলে মহাসিন আলী (২৫) ও আব্দুল বারির ছেলে জাফর আলীকে (৩৫)। পুলিশ গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলাদায়ের পূর্বক উদ্ধারকৃত সরঞ্জামসহ রাতেই চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোপর্দ করেছে।
এদিকে এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন থেকে কথিত কালুশাহর আখড়ায় গ্রামের বেশ কিছু মানুষ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে সন্ধ্যার পর আসর নেশার আসর বসিয়ে নেশা করে আসছিলো। আর এ আসরে গ্রামের আফসার আলীর ছেলে নজির মিস্ত্রি ও ফিরজ আলীর ঘরজামাই তোফা নেশার দ্রব্য সাপ্লাই দিয়ে থাকতো। যদিও তাদেরকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গ্রামবাসী আরও অভিযোগ করে বলেছে, বড়সলুয়া গ্রামে নজির ও তোফা নেশার আড্ডা এবং সাত্তার, ফারুক ব্যাপারী, লিটন ও টিক্কা জুয়ার আসর বসিয়ে উঠতি বয়সী যুবসমাজকে বিপদগামী করে তুলেছে। যাতে করে গ্রামবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। হিজলগাড়ি ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই আমিরুল ইসলাম বলেন, আখড়ায় কোনো গাঁজা পাওয়া না গেলেও গ্রেফতারকৃতদের চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *