১০ দিনের মধ্যে অবস্থার নিরসন না হলে সড়ক অবরোধের হুঁশিয়ারি

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন ইটভাটায় চাঁদার দাবিতে সন্ত্রাসীদের অতর্কিত বোমা হামলা, শ্রমিক অপহরণসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা ইটভাটা মালিক সমিতি। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি হাজি মোহাম্মদ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব, জিকজাক ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান নান্নু, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, নির্বাহী সদস্য হাজি রায়হান উদ্দিন, আসাদুজ্জামান আকুল প্রমুখ।
এ সময় চুয়াডাঙ্গা জিকজাক ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান লিখিত বক্তব্যে বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা একটি রক্তাক্ত জনপদ। জেলায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড কমলেও তা পুরোপুরি নিঃশেষ হয়নি। প্রতিবছর ইট তৈরির মরসুমে বিভিন্ন নামধারী সন্ত্রাসী গ্যাং গ্রুপ সক্রিয় হয়ে ওঠে। শ্রমিকরা রাত জেগে ইট পোড়ানোর কাজ করে এবং প্রতিটি ভাটায় নৈশপ্রহরী পাহারায় থাকে। চাঁদার দাবিতে সশস্ত্র গ্যাং গ্রুপ রাতে বিভিন্ন ভাটায় নিরীহ শ্রমিকদের ওপর হামলা, মারধর, অপহরণসহ হত্যার হুমকি দেয়। তারা চাঁদা না দেয়া পর্যন্ত ইটভাটায় বোমাবাজিসহ হত্যাকাণ্ডের মতো রোমহর্ষক ঘটনা ঘটিয়ে থাকে এবং ইট তৈরির কাজ বন্ধ করে দেয়। গত বছর জেলা ইটভাটা মালিক সমিতিভুক্ত ৮৪টি ইটভাটায় বিভিন্ন সময় ১ থেকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত চাঁদা আদায় করেছে। বিভিন্ন গ্যাং গ্রুপের মধ্যে বিকাশ, বিজয়, সাগর, গুরুদেব, বিশ্বজিৎ ও আকাশ নামধারী সন্ত্রাসী গ্যাং গ্রুপ অত্যন্ত তৎপর। ২ বছর আগে চাঁদার টাকা না পেয়ে তারা জেলা সদরের নয় মাইলের একতা ব্রিক্সের মালিক আব্দুল বারীর ছেলে সোহেলকে অপহরণ করা হয়। আজও তার হদিস মেলেনি। বিষয়টি জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে বারবার জানালেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এ অবস্থার নিরসন করা না হলে ইটভাটার পরিবহন দিয়ে চুয়াডাঙ্গার সড়ক অবরোধ করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। এছাড়া অবিলম্বে চুয়াডাঙ্গা জেলাকে সন্ত্রাসমুক্ত করা ও জেলা হেড কোয়ার্টারে ৱ্যাব ক্যাম্প প্রতিষ্ঠার দাবিও জানান চুয়াডাঙ্গা জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। পরে জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেন জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন নেজারত ডেপুটি কালেক্টর মুনিবুর রহমান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *