১০০ দিন পর নিজ নির্বাচনী এলাকায় ফিরে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার এমপি

দেশের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে বিভেদ বিভ্রান্ত সৃষ্টিকারীদের রুখতে হবে
স্টাফ রিপোর্টার: দীর্ঘ ১০০ দিন পর নির্বাচনী এলাকা চুয়াডাঙ্গায় ফিরলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। গতকাল শুক্রবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা শহরের আরামপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে পৌঁছান। এসময় তার সঙ্গে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন অংগসংগঠণের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
চুয়াডাঙ্গার প্রবেশমুখ বদরগঞ্জে তাকে স্বাগত জানাতে দলীয় নেতাকর্মীদের ভিড় জমে। এসময় তিনি সুস্থতার জন্য সৃষ্টি কর্তার প্রতি শুকরিয়া আদায় করেন। দলীয় নেতা কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে সকল প্রকারের ষড়যন্ত্র রুখতে হবে। বিশেষ করে দলের অভ্যন্তরে ঘাপটি মেরে থেকে বিভেদ বিভ্রান্ত সৃষ্টি কারীদের চিহ্নিত করা জরুরি হয়ে পড়েছে। অন্যথায় জামায়াত-বিএনপি সুযোগ নেবে।
জানা গেছে, গত ২৯ ডিসেম্বর হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকায় যান। ঢাকা থেকে যান ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। স্ত্রীর চোখের চিকিৎসাসহ নিজের চিকিৎসার এক পর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। মাজায় তীব্র ব্যথার চিকিৎসা নিতে শুরু করেন। দেশে ফিরে বিশ্রামের এক পর্যায়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ১৩ ফেব্রুয়ারি ভারতের চেন্নাইয়ে যান। সেখানে স্পাইনাল কডের একটি অপারেশন করেন। সুস্থ হওয়ার পর ভারত থেকে ঢাকায় ফেরেন। ঢাকায় বিশ্রাম শেষে গতকাল শুক্রবার সকালে চুয়াডাঙ্গার উদ্দেশে জাতীয় সংসদ ভবনস্থ সরকারি বাসভবন থেকে রওনা হন। বিমান যোগে যশোরে পৌঁছান। সেখান থেকে সড়কে চুয়াডাঙ্গার উদ্দেশে রওনা হন। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাতীয় সংসদের হুইপ চুয়াডাঙ্গায় ফিরছেন খবরে তাকে স্বাগত জানাতে ভিড় জমান চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের বদরগঞ্জে। সেখানে কলাহাটে পথসভায় বক্তব্য রাখেন হুইপ সোলায়মান হক জেয়ার্দ্দার এমপি। তিনি বলেন, অসুস্থতার কারণে এলাকায় ফিরতে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। মহান সৃষ্টি কর্তার রহমতে এখন মোটামুটি সুস্থ। এসময় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আসাদুল হক বিশ্বাস, আওরঙ্গজেব মোল্লা টিপু, মোশারফ হোসেন, অ্যাড. আব্দুর রশিদ মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ উজ্জামান লিটু, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান মনজু ও আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল মল্লিকসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সদস্যবৃন্দ ও বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
বদরগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সকাল ১১টার দিকে বদরগঞ্জ বাজারে কলার হাটে অসংখ্য দলীয় নেতাকর্মী সমাবেত হন। হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার সেখানে পৌঁছুলে করতালিসহ মুহু স্লোগানে স্বাগত জানান দলীয় নেতাকর্মীরা। হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন আমাদের আওয়ামী লীগের মধ্যে যারা বিভ্রান্তি করবে তাদেরকে হুঁসিয়ারি করে জানাতে চাই, জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গ বন্ধুর সুযোগ্য কন্যা। তিনি দেশের স্বার্থে বিরামহীন কাজ করে চলেছেন। সাংগঠনিক কর্মকা-ে কোনো প্রকারের বিভেদ বিভ্রান্তি তিনি বরাদাস্ত করবেন না। কোনভাবেই বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্রে দেশের নূন্যতম ক্ষত হোক তা চাইবেন না। ফলে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে অগ্রহণীভূমিকা রাখতে হবে। চক্রান্তকারীদের চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্তা নিতে হবে।
বদরগঞ্জ থেকে শোভাযাত্রা সহকারে দলীয় নেতাকর্মীরা হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপিকে চুয়াডাঙ্গা আরামপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয় সংলগ্ন বাড়িতে নেন। সেখানে অপেক্ষামান নেতা-কর্মী সমর্থকদের সাথে কুশল বিনিময়ের পাশাপাশি দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যে বলেন, বিভ্রান্ত ছড়িয়ে, দলীয় বিভেদ সৃষ্টি করে আর যাই হোক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ক্ষতি করা যাবে না। বঙ্গবন্ধুর আর্দশে অনুপ্রাণীত সৈনিকেরা বিভেদ বিভ্রান্ত পছন্দ করে না। কোনো প্রকারের ষড়যন্ত্রও মেনে নেয় না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *