হাসাদাহ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ার দখলের লড়াইয়ে চার প্রার্থী

জীবননগর ব্যুরো: আগামী ২৯ মার্চ জীবননগর উপজেলার হাসাদাহ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘিরে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য ও সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদপ্রার্থীরা।
হাসাদাহ ইউনিয়ন গঠনের পর প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন জামায়াতে ইসলামীর সিরাজুল ইসলাম মাস্টার। এবারও তিনি জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। জামায়াতে ইসলামী এ ইউনিয়নটি ধরে রাখতে মরিয়া। অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের রবিউল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চশমা প্রতীক নিয়ে সোহরাফ বিশ্বাস ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের কামাল উদ্দীন সিদ্দীকীও এ ইউনিয়নটি দখলে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। শেষ কে হাসাদাহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আসীন হচ্ছেন তা অবশ্য দেখার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।
হাসাদাহ ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে ৪জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন নুর বানু (জিরাফ), মুসলিমা খাতুন (মাইক), লিপি খাতুন (কলম) ও আদুরী বেগম (হেলিকপ্টার)। ৪, ৫ ও ৬ নং আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬জন। এরা হলেন- দিপা খাতুন (মাইক), ফুলজান বেগম (বক), বেদানা খাতুন (হেলিকপ্টার), লিলি খাতুন (সূর্যমূখি ফুল), শাপলা খাতুন (জিরাফ) ও সুকজান (তালগাছ) এবং ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডে লড়ছেন ৩ জন। এরা হলেন- মনুয়ারা খাতুন (বক), রুবীনা আক্তার (বই) ও হালিমা বেগম (তালগাছ)।
সাধারণ ১ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩জন। এরা হলেন- অমেদুল হক (বৈদ্যুতিক পাখা), নায়েব আলী (টিউবওয়েল) ও মন্টু মিয়া (মোরগ)। ২ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন। এরা হলন- আসাদুল ইসলাম (ফুটবল), উছমান আলি (টিউবওয়েল) ও আছাদুজ্জামান (মোরগ)। ৩ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন। এরা হলেন- আতিকুজ্জামান (টিউবওয়েল), আবুল কাশেম (মোরগ), ইয়াকুব আলী (ফুটবল) ও ওয়াদুদ আলী (বৈদ্যুতিক পাখা)। ৪ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩জন। এরা হলেন- আমির হোসেন (মোরগ), তবিবুর রহমান (টিউবওয়েল) ও সাইফুল ইসলাম (ফুটবল)। ৫ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন। এরা হলেন- আতিয়ার রহমান (টিউবওয়েল), জুম্মত মন্ডল (বৈদ্যুতিক পাখা), শরিফুল ইসলাম (মোরগ) ও সাদিকুল রহমান (ফুটবল)। ৬ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। এরা হলেন- কবির আহম্মদ (মোরগ), মগরেব আলী (টিউবওয়েল), শাইফুল আলম (বৈদ্যুতিক পাখা) ও শাহাজুল হক (ভ্যান গাড়ি)। ৭ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ জন। এরা হলেন- আব্দুল গণি (আপেল), আ. হামিদ (তালা), জাকির হোসেন (ভ্যান গাড়ি), নুরুল ইসলাম (মোরগ), মতিয়ার রহমান (টিউবওয়েল) ও সবুজ মিয়া ফুটবল)। ৮ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন। এরা হলেন- আলাউদ্দীন মন্ডল (মোরগ), আব্দুল মোতালেব (টিউবওয়েল), ওমর ফারুক মল্লিক (তালা), মাহাবুব আলম (ফুটবল) ও রোকনুজ্জামান ( বৈদ্যুতিক পাখা) এবং ৯ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সর্বাধিক ৮ জন। এরা হলেন- অনোয়ার হোসেন (ফুটবল), আব্বাস উদ্দিন (ভ্যান গাড়ি), আবু হোসেন (টিউবওয়েল), আবুল কাশেম (ঘুড়ি), আলী আহাম্মদ (বৈদ্যুতিক পাখা), গিয়াস উদ্দীন ( মোরগ), ছালাম বিশ্বাস (আপেল) ও সোহেল রানা (তালা)।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *