হরিণাকুণ্ডুতে প্রকাশ্যে স্টেজ বানিয়ে মহিলাদের ওয়াজ মাহফিল নিয়ে তোলপাড়

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ভারতে মহিলার ইমামতিতে নামাজ পড়ানোর ঘটনা নিয়ে যখন আলেম সমাজে তোলপাড় তখন সেই রেশ কাটতে না কাটতে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে মহিলাদের প্রকাশ্যে স্টেজ বানিয়ে ওয়াজ করার ঘটনা ঘটেছে। জেলার হরিণাকু-ু উপজেলার কুলবাড়িয়া গ্রামে এই মহিলাদের কথিত ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ওই গ্রামের ফকির মাহমুুদ বিশ্বাস এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদরাসায় দুদিনব্যাপী এই ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করে। মঙ্গলবার কথিত মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ওয়াজ নসিয়ত করেন অন্ধ বক্তা মোছা. নার্গিস পারভীন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোছা. আশুরা খাতুন। আলফাজ উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কুলবাড়িয়া জামে মসজিদের ইমাম মো. আকিদুল ইসলাম। মহিলাদের ওয়াজ সম্পর্কে আলেমদের বক্তব্য হচ্ছে, শরিয়তে মহিলাদের নিচু কন্ঠ ও পর্দা করার বিধান রয়েছে। যদি প্রয়োজনে কথা বাইরে যেতেই হয়, তবে সেটা কর্কষ কণ্ঠে, আর এটাই ফেকাহর মাছলা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঝিনাইদহের কয়েকজন ইমাম জানান, এটা শেষ জামানার ফেতনা। এই বৈঠকে যাওয়া ও নসিয়ত শোনাও হারাম। মাওলানা হাসান মাহমুদ নামে এক আলেম জানান, আওরাত মানে গোপনীয়। যা ছুপিয়ে রাখতে হয়, মহিলারাও ঠিক তাই। তিনি বলেন, নারীরা ঘরোয়া পরিবেশে ওয়াজ করতে পারবেন। তবে সেখানে মেয়েরা থাকবেন। কিন্তু হরিণাকুণ্ডুতে যা হয়েছে তা ন্যাক্কারজনক ঘটনা বলেই মনে হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *