হজ প্যাকেজ ঘোষণা

 

স্টাফ রিপোর্টার: সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবারে (১৪৩৮ হিজরি সন) হজ পালনের সার্বিক ব্যয়ের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে সরকার। ধর্মমন্ত্রণালয় নির্ধারিত সব ধরনের খরচের অতিরিক্ত এবারও একজন হজযাত্রী এক হাজার ডলার সাথে নিতে পারবেন। হিজরি ১৪৩৫ সনে যা ৫শ ডলার ছিলো। গতকাল এ সংক্রান্ত দুটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ব্যাংকগুলোতে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

দেশে কার্যরত ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট পাঠানো ওই প্রজ্ঞাপনে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ গমনেচ্ছুদের কাছ থেকে হজের প্যাকেজ অনুযায়ী স্থানীয় মুদ্রায় অর্থ জমা গ্রহণের বিপরীতে বৈদেশিক মুদ্রা ইস্যুসহ প্রাসঙ্গিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অনুমোদিত ডিলারদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে প্রতি মার্কিন ডলার ৮০ টাকা ৫০ পয়সা এবং সৌদি রিয়েল ২১ টাকা ৫০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার সমসাময়িক বাজার দর অনুযায়ী হবে।

এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনে দুটি প্যাকেজ রয়েছে। প্যাকেজ-১ অনুযায়ী, জনপ্রতি হজের খরচ ধরা হয়েছে তিন লাখ ৮১ হাজার ৫০৮ টাকা। প্যাকেজ-২ অনুযায়ী খরচ ধরা হয়েছে তিন লাখ ১৯ হাজার ৩৫৫ টাকা। অপরদিকে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের খরচ ধরা হয়েছে জনপ্রতি এক লাখ ৫৬ হাজার ৫৩৭ টাকা। তবে এজেন্সি প্যাকেজ অনুযায়ী মিনা-আরাফায় মোয়াল্লেমের অতিরিক্ত সার্ভিস চার্জ, মক্কা-মদিনায় বাড়ি/হোটেল ভাড়া ব্যয়, কোরবানির খরচ, গাইড খরচ, খাওয়া খরচ এর সাথে যোগ হবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রচলিত ব্যবস্থায় টিএ ফরমে আবেদনের ভিত্তিতে কনফার্মড রিটার্ন এয়ার টিকিট ও আন্তর্জাতিক পাসপোর্ট এনডোর্সমেন্টপূর্বক বৈদেশিক মুদ্রা ইস্যু করা যাবে। বিমান টিকিটে উল্লেখিত যাত্রার তারিখের দুই সপ্তাহের পূর্বে কোনো বৈদেশিক মুদ্রা ইস্যু করা যাবে না। বৈদেশিক মুদ্রা কেবল সংশ্লিষ্ট হজযাত্রীর নিকট হস্তান্তরের বিষয়টি অনুমোদিত ডিলারদের নিশ্চিত করতে হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *