স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে : মেহেরপুরে বরসহ তিন জনের কারাদণ্ড

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর সদর উপজেলার উজলপুর গ্রামে স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে আয়োজন পণ্ড করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বাল্যবিয়ের অপরাধে বরের এক মাস, বরের দাদা ও বিয়ে পড়ানো মৌলভীকে দুই মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রামানন্দ পাল। গতকাল শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

দণ্ডিতরা হচ্ছে- শৈলমারী গ্রামের গাজি রহমানের ছেলে ইদ্রিস আলী (২০) ও তার দাদা রমজান আলী এবং মনোহরপুর গ্রামের মৌলভী শরিফুল ইসলাম। গতরাতেই তাদেরকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতসূত্রে জানা গেছে, উজলপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের মেয়ে স্থানীয় বালিকা বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী বাছিরন খাতুনের সাথে পার্শ্ববর্তী শৈলমারী গ্রামের ইদ্রিস আলীর বিয়ে ঠিক হয়। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বরযাত্রীরা কনের বাড়িতে পৌঁছে নাস্তা করছিলো। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালান। বরসহ বরযাত্রীরা পালানোর চেষ্টা করে। অভিযান দরের সদ্যস্য সদর থানার এসআই আব্দুল মালেক ও নাজির কুদরত-এ-খোদা রানা তাদের পিছু নেয়। এক পর্যায়ে বরসহ কয়েকজনকে আটক করতে সক্ষম হয়। পণ্ড হয়ে যায় বিয়ে। আটককৃতরা শিশু বিয়ে দেয়ার বিষয়ে নিজেদের দোষ স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করে। বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনের (সংশোধিত ২০১৭) ৭(১) ও ৯ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে কারাদ- দেয়া হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশে রাতেই দ-িত তিনজনকে মেহেরপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করে পুলিশ।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *