সিরিয়ায় হামলা স্থগিত করার ইঙ্গিত দিলেন ওবামা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: সিরিয়ায় সামরিক অভিযানের ব্যাপারে সুর আরও নরম করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সিরিয়া সরকারের কাছে থাকা রাসায়নিক অস্ত্র আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে জমা দিতে রাশিয়ার আহ্বানের সাথে ঐকমত্য পোষণ করে তিনি বলেছেন, আসাদবাহিনী যদি তাদের রাসায়নিক অস্ত্র ভাণ্ডার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নিয়ন্ত্রণে দিতে সম্মত হয়, তবে যুক্তরাষ্ট্র দেশটিতে হামলা চালানোর পরিকল্পা স্থগিত করতে পারে। তবে সিরিয়ার সরকার এ শর্ত মানবে কি-না এ ব্যাপারে নিজের সন্দেহও প্রকাশ করেন ওবামা। সিরিয়ায় সম্ভাব্য সামরিক হামলার ব্যাপারে মার্কিন কংগ্রেস ও জনগণসহ বিশ্ববাসীর সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে সোমবার রাতে অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক সংবাদমাধ্যমে এক সাক্ষাৎকারে ওবামা বলেন, আমি এটা নিশ্চিত করতে চাই যে, রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রণীত আইন মানা হয়েছে। তিনি বলেন, এখানে আমাদের জাতীয় নিরাপত্তার বিষয় জড়িয়ে আছে। যদি এই সমস্যার সমাধান কোনো সামরিক অভিযান ছাড়াই সম্ভব হয়, তবে সেটা আমার জন্য অনেক ভাল খবর হবে। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদবাহিনী যদি রাসায়নিক অস্ত্রের নিয়ন্ত্রণ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হাতে ছেড়ে দেয়, সেক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র কি সত্যিই হামলার পরিকল্পনা স্থগিত করবে- এ প্রসঙ্গে ওবামা বলেন, অবশ্যই, যদি এমনটি ঘটে থাকে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, ওয়াশিংটন-মস্কোর একই ধরনের বক্তব্য সিরিয়ায় সামরিক অভিযান না চালানোরই ইঙ্গিত দিচ্ছে। সম্প্রতি দামেস্ক সরকারকে যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত করে মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে, ২১ আগস্টের রাসায়নিক অস্ত্র হামলা আসাদবাহিনীই চালিয়েছে। যদিও আসাদ সরকারের পক্ষ থেকে এ জন্য বিরোধীদের দায়ী করা হচ্ছে। এদিকে সিরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানের অনুমোদন চাওয়া হলে মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের অর্ধেকেরও বেশি সদস্য বিরোধিতা বা বিরোধিতার মতো মতামত দিয়েছেন। জানা গেছে, ৪৩৩ জন সদস্যের মধ্যে ২৩০ জন সদস্যই সিরিয়ায় হামলার বিরোধী। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রভাবশালী সংবাদসংস্থা জরিপ চালিয়ে জানিয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন প্রশাসনের নতুন করে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার বিপক্ষে দেশটির ৭৫ শতাংশ নাগরিক।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *