সিরিয়ার ঘাঁটিতে ইসরায়েলি বিমান হামলা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: সিরিয়ার লাতাকিয়া বন্দরের কাছে একটি সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে ইসরায়েল বিমান হামলা চালিয়েছে। হামলার বিষয়টি স্বীকার করেনি ইসরায়েলি সরকার। গত বৃহস্পতিবার ওই সামরিক ঘাঁটি থেকে লেবাননের হিজবুল্লাহ মিলিশিয়াদের ক্ষেপণাস্ত্র সরবার করা হচ্ছে এমন সন্দেহের বশবর্তী হয়ে ঘাঁটিতে মোতায়েন ক্ষেপণাস্ত্র লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়। সিরিয়ার বিমান বাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা থেকে পক্ষত্যাগী লাতাকিয়া এলাকার সাথে যোগাযোগ আছে এমন এক সরকারবিরোধী সূত্র জানিয়েছে, লাতাকিয়ার আইন শিকাক গ্রামের কাছের ওই ঘাঁটিতে সিরিয়ার দীর্ঘ পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার ওপর হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। রুশ নির্মিত এ ক্ষেপণাস্ত্রগুলি প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ বাহিনীর সবচেয়ে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর অন্যতম বলে জানিয়েছেন আফাক আহমদ নামের সাবেক এ সরকারি কর্মকর্তা। লেবাননের হিজবুল্লা গেরিলাদের জন্য পাঠানো রুশ ক্ষেপণাস্ত্রের একটি চালান ধ্বংস করাই ছিলো এ হামলার লক্ষ্য। সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের এ বন্দর শহরের একটি বড় অংশ সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ হামলার খবর সত্য হলে এ নিয়ে চলতি বছর চতুর্থবারের মতো সিরিয়ায় বিমান হামলা চালালো ইসরায়েল। ইসরায়েল বরাবরই বলে আসছে, সিরিয়া সরকার হিজবুল্লাহর মতো ইসরায়েলের শত্রু গেরিলা দলগুলোকে অস্ত্র যোগাতে চাইলে তারা চুপ থাকবে না। বৃহস্পতিবার দিনভর এ হামলার বিষয়টি নিয়ে জল্পনা কল্পনা চললেও ইসরায়েল বা সিরিয়া এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো বিবৃতি দেয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *