সাপে কেটে মারা গেছেন পদ্মবিলা ইউপি চেয়ারম্যানের মা শুকজান নেছা : দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার পরও মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন

পদ্মবিলা প্রতিনিধি: সাপে কেটে পদ্মবিলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাসের মা শুকজান নেছা মারা গেছেন। গতপরশু রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে নিজ ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় সাপে দংশন করে। হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়ার এক পর্যায়ে সকাল ৯টার দিকে মারা যান তিনি। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়েও ৭৬ বছর বয়সী শুকজান নেছাকে সুস্থ করা সম্ভব হয়নি কেনো? কর্তব্যরত চিকিৎসকের অভিমত, এন্টি¯েœকভেনমসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হলেও কেনো যে তিনি সুস্থ হলেন না তা আমাদেরও ভাবিয়ে তুলেছে। ৭৬ বছর বয়সী বৃদ্ধার বিষক্রিয়া কাটলেও হৃদরোগই হয়তো মৃত্যুর কারণ হয়েছে।
শুকজান নেছা চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের পদ্মবিলা ইউনিয়নের সুবদিয়া গ্রামের মুনছুর আলী বিশ্বাসের স্ত্রী। গতকাল বাদ আসর সুবদিয়া কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। মৃত্যুকালে তিনি ৫ পুত্র ৩ কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। নামাজে জানাযায় উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক, কুতুবপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহম্মদ হাসানুজ্জামান মানিক, সরোজগঞ্জ বাজার কমিটির সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ, পদ্মবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজেদ হোসেন, আরও উপস্থিত ছিলেন মেম্বার কামাল উদ্দীন, আব্দুর রউফ, সাইফুল আযম রবি, মজিবুল হক, আজিবার রহমান, হাসানুজ্জামান, মোবারেক হোসেন, আব্দুর রাজ্জাক, আলম আলী, মহিলা সদস্য মুসলিম খাতুন, খালেদা খাতুন, চায়না খাতুন, আম্বিয়া খাতুন, ডিজিটাল সেন্টারের পরিচালক হাসিবুল হাসান হাসিব প্রমুখ। জানাযার নামাজ পড়ান মাওলানা আব্দুল মতিন। জানাযা শেষে পাঁচমাইল বাজারে সুবদিয়া জান্নাতুল কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *