সঙ্কট আরো ঘনীভূত হলো

স্টাফ রিপোর্টার: নির্বাচনকালীন অন্তর্বর্তী সরকার ব্যবস্থা বিষয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রস্তাবে বিদ্যমান সঙ্কট আরো ঘনীভূত এবং দু দলের মধ্যে সমঝোতার পথ আরো দূরীভূত হলো বলে মনে করেন সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক। গতকাল সোমবার তিনি এ কথা বলেন। শাহদীন মালিক বলেন, খালেদা জিয়া নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা বিষয়ে যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তাতে রাজনৈতিক সঙ্কট আরো গভীর হলো। ওনার প্রস্তাবে কোনো সমাধান আসলো না। কেননা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টাদের নিয়ে এখন অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করতে হলে সংবিধান সংশোধনের প্রয়োজন হবে। আওয়ামী লীগ বর্তমান অবস্থায় সংবিধান সংশোধনে যাবে বলে মনে হয় না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সর্বদলীয় সরকারের প্রস্তাব এবং বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার ১৯৯৬ এবং ২০০১ সালের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টাদের মধ্য থেকে ১০ জনকে নিয়ে অন্তর্বর্তী সরকারের প্রস্তাবের মধ্যে কোনো কমন বা সাধারণ বিষয় নেই বলে মন্তব্য করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রাক্তন এ শিক্ষক।

তিনি বলেন, দু নেত্রীর অবস্থানে ফারাক বা দূরত্ব এতো বেশি, সমঝোতার সম্ভাবনা আরো দূরীভূত হলো। কেননা সংবিধান সংশোধন ছাড়া বিএনপির প্রস্তাব কার্যকর করা সম্ভব না। আর আওয়ামী লীগ তা করবে বলে আমরা আশা করতে পারি না। তাই সমঝোতার সম্ভাবনা ক্ষীণতরই হলো। খালেদা জিয়ার বক্তব্য সম্পর্কে শাহদীন মালিক বলেন, ওনার বক্তব্যে অতীত রাজনীতির ভুল স্বীকার রয়েছে। ব্যক্তিগত রেশারেশি বিষয়ে ওনার বক্তব্যে জনগণের প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটেছে। কেননা দু নেত্রীর ব্যক্তিগত রেশারেশির কারণে তাদের প্রতি জনগণ অনেকটাই বীতশ্রদ্ধ হয়ে পড়েছিলো। এক্ষেত্রে তার বক্তব্য ইতিবাচক অর্থ প্রকাশ করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *