শীত : বড়ি দেয়ার ধুমের মাঝে দুশ্চিন্তার রেখা

চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুরসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় ছিন্নমূল মানুষের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ

 

স্টাফ রিপোর্টার: তীব্র শীতে গ্রামে গ্র্রামে বড়ি দেয়ার ধুম পড়েছে। এরই মাঝে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সুস্পষ্ট হয়ে উঠেছে লঘুচাপটি। নিম্নচাপে রূপ নিলে বড়ি দেয়া গৃহিণীদের পড়তে হবে বেকায়দায়। দুস্থ দরিদ্র ছিন্নমূল মানুষ শীতবস্ত্রের অভাবে অসহনীয় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। গতকাল চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো কক্সবাজারে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদফতর পূর্বাভাসে জানিয়েছে, সুস্পষ্ট লঘুচাপটি দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে। উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। অস্থায়ীভাবে আংশিক  মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সেই সাথে কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইলও ময়মনসিংহ অঞ্চলসহ  রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দু-এক জায়গায় হালকা বৃষ্টি হতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। রংপুর বিভাগসহ টাঙ্গাইল, মাদারীপুর, সীতাকুণ্ডু, শ্রীমঙ্গল, রাজশাহী, পাবনা, সাতক্ষীরা, যশোর, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা ও ভোলা অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

তীব্র শীতে চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুরে চালকুমড়ো কুরে, কলাইয়ের ডালের মিশ্রণ কুটে-বেটে বড়ি দেয়ার ধুম পড়েছে। বাড়ির ছাদে চালিতে, মইয়ে চালি বেঁধে খুঁটিতে আটকে রোদে দেয়া হয় বড়ি। প্রতিবছর শীতে গ্রামবাংলায় বড়ি দেয়ার ধুম পড়ে। আকাশ মেঘলা হলে চালিতেই পঁচে বড়ি। তাইতো বড়ি দেয়ার পর গৃহিণীদের দুশ্চিন্তার শেষ থাকে না। চলমান মৃদু শৈত্যপ্রবাহে যখন বড়ি দেয়ার অনুকুল পরিবেশ, তখনই বঙ্গোপসাগরে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে লঘুচাপ। এটা কি নিম্নচাপে রূপ নেবে? গতকাল অবশ্য স্পষ্ট করে জানায়নি আবহাওয়া অধিদফতর।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *