শাহজালাল বিমানবন্দরে ছুরিকাঘাতে আনসার সদস্য নিহত

 

স্টাফ রিপোর্টার: হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছুরি হাতে চড়াও এক যুবকের আঘাতে নিহত হয়েছেন এক আনসার সদস‌্য। আহত হয়েছেন আরও তিন নিরাপত্তা রক্ষী। গতকাল রোববার সন্ধ‌্যায় বহির্গমন ফটক দিয়ে ঢুকে ওই যুবক ছুরি নিয়ে এলোপাতাড়ি হামলা চালায় বলে বিমানবন্দরে নিরাপত্তায় থাকা আর্মড পুলিশ ব‌্যাটালিয়ন (এপিবিএন) ও আনসার বাহিনীর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। বাংলাদেশের প্রধান বিমানবন্দরে ওই সময় উপস্থিত বিদেশগামী যাত্রীদের মধ‌্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে বলে প্রত‌্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে। অনেককে ছোটাছুটি করতে দেখা যায়।

ওই যুবককে আটক করা হয়েছে। কী কারণে তিনি ছুরি নিয়ে চড়াও হয়েছিলেন, তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।

হামলাকারী যুবক বিমানবন্দরের পরিচ্ছন্নতার দায়িত্বে থাকা একে ট্রেডার্সের গেঞ্জি পরে ঢুকলেও তিনি ওই প্রতিষ্ঠানটির কর্মী নন বলে এপিবিএনের সহকারী সুপার তানজীলা আক্তার জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সে একে ট্রেডার্সের কেউ না বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। প্রতারণা করে সে ওই গেঞ্জি সংগ্রহ করে থাকতে পারে। বিমানবন্দর থানার ওসি নূরে আযম মিয়া বলেন, ছেলেটা একবার বলছে, তার নাম শিহাব, আবার অন‌্য নাম বলছে। একেক সময় একেক নাম বলছে। তার উদ্দেশ‌্য কিছু জানা গেছে কি না- প্রশ্ন করা হলে ওসি বলেন, তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করতে হবে। আটকের সময় আহত ওই যুবককে রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এপিবিএন কর্মকর্তা তানজীলা বলেন, তাকে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তারাই ঘটনার তদন্ত করবে। বিমানবন্দরে এপিবিএনের অধিনায়ক রাশেদুল ইসলাম সন্ধ‌্যা সাড়ে ৭টার দিকে  বলেন, ছুরিকাঘাতে দুজন আনসার ও দুজন এপিবিএন সদস‌্য আহত হয়েছেন। তাদের কুর্মিটোলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। একজন আনসারের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গুরুতর আহত আনসার সদস‌্য সোহাগ আলীর মৃত‌্যুর খবর রাত ৯টার দিকে  নিশ্চিত করেন ঢাকা মহানগর আনসারের উত্তর জোনের অধিনায়ক ইব্রাহিম ভূইয়া। তিনি বলেন, আহত অন‌্য আনসার সদস‌্য এপিসি জিয়াকে সিএমএইচে (সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল) পাঠানো হয়েছে। তার অবস্থাও গুরুতর বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এপিবিএনের দুই কনস্টেবল আশিক ও ইশতিয়াক কুর্মিটোলা হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন বলে জানিয়েছেন বাহিনীর কর্মকর্তা তানজীলা। সিভিল এভিয়েশনের নিরাপত্তা বিভাগের এক পরিদর্শক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সন্ধ্যার পর ওই যুবক ঢুকে প্রথমে বহির্গমন ফটকে এক আনসার সদস্যের পেটে ছুরি চালান, এরপর আরেকজনের মাথায় আঘাত করে ফটক দিয়ে ঢুকে পড়েন। প্রত‌্যক্ষদর্শী আরেকজন বলেন, হলুদ রঙের টি শার্ট ও সাদা রঙের প‌্যান্ট পরা ওই যুবক ৩ নম্বর ফটক দিয়ে ঢুকে ছুরি হাতে দৌড়াদৌড়ি শুরু করে। প্রথমে সবাই হকচকিয়ে গেলেও পরে নিরাপত্তা রক্ষীরা তাকে ধরে ফেলে। এপিবিএনের সহকারী সুপার তানজীলা বলেন, আনসার সদস‌্যদের আহত করে ওই যুবক ভেতরে ঢুকে পড়লে সিআরটির (ক্রাইসিস রেসপন্স টিম) কনস্টেবল আশিক তাকে জাপটে ধরে। তখন ওই যুবক আশিকের গালে ও কপালে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। তখন ইশতিয়াক এগিয়ে গেলে তার সঙ্গেও ধস্তাধস্তি হয়।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *