লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় অংশ নিয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হবে

????????????????????????????????????

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। এ সময় জাতীয় পতাকা, গাইড পতাকা, রেড ক্রিসেন্ট পতাকা স্কুলের পতাকা ও ক্রীড়া পতাকা উত্তোলন করা হয়।
আনুষ্ঠানিকভাবে এসব পতাকা উত্তোলন করেন যথাক্রমে জাতীয় সংসদের হুইপ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি, জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস, পৌর রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অ্যাড. নুরুল ইসলাম। দিনব্যাপী ৫৬টি ইভেন্টে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অ্যাড. নুরুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। এ সময় তিনি বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রয়োজন অপরাশীম। শুধু খেলায় মত্ত থাকলেই চলবে না লেখাপড়াতেও হতে হবে মনোযোগী। ভাল ফলাফলে যেমন পিতা-মাতা খুশি হন, তেমনি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরও সুনাম বৃদ্ধি পায়। লেখাপাড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় অংশ নিয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হবে। তাহলে আমরা দেশকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক হযরত, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর বেগম, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. এমএম শাহজাহান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. হেদায়েত হোসেন আসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক শওকত আলী, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি সাহাবুদ্দীন, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য মুনসুর আলীসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন। দিনব্যাপী খেলা পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষক শামসুন নাহার শিলা। উপস্থাপনা করেন সাবেক প্রধান শিক্ষক হানিফা খাতুন ও সহকারী শিক্ষক হুমায়ূন কবির। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন প্রধান শিক্ষক রেবেকা সুলতানা। বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী রূপালী খাতুন ৫টি ইভেন্টে অংশ নিয়ে ৪টি প্রথম স্থান অধিকারসহ ৫টি পুরস্কার জিতে নিয়ে চমক সৃষ্টি করে। রূপালী দামুড়হুদা উপজেলার উজিরপুর স্কুলপাড়ার আবুল কালাম ও ফিরোজা খাতুনের কনিষ্ঠ মেয়ে। রূপালী লেখাপড়ায় যেমন মনোযোগী তেমনি খেলাধুলায় তার কৃতিত্ব কম নয়। সে উপস্থিত বক্তব্যে অংশ নিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করে। এছাড়াও ধারাবাহিক গল্প বলা, রচনা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে ও হামদ ও নাত পরিবেশনায় তৃতীয় স্থান অধিকার করে। বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেধা তালিকায় প্রথমস্থান অধিকার করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *