মেহেরপুরে অশ্লীল পোস্টার ও লিফলেটে ছেয়ে গেছে

0
40

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর শহরসহ জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও জনাকীর্ণ এলাকায় যৌন চিকিৎসার নামে বিভিন্ন হারবাল কোম্পানির অশ্লীল পোস্টার ও লিফলেটে ছেয়ে গেছে। অশ্লীল ও যৌন আবেদনময়ী পোস্টার ও ছবি দেখে মেহেরপুরের সচেতনমহল উদ্বিঘ্ন হলেও এ বিষয়ে প্রশাসনের নজরদারি নেই। যে কারণে ইচ্ছেমতো হারবাল কোম্পানিগুলো শহরের বাসস্ট্যান্ড, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের দেয়ালসহ জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণস্থানে পোস্টার ও লিফলেট লাগিয়ে যাচ্ছে।

জানা যায়, সম্প্রতি মেহেরপুর শহরের মুক্তি হাকিমি ওষুধালয়, গাংনী উপজেলার শাহজালাল হারবাল, কোলকাতা হারবাল ও মাদরাজ হারবালসহ বিভিন্ন হারবাল কোম্পানি শহরের বাসস্ট্যান্ড, মহিলা কলেজ, মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ, সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দেয়ালে ও আশে-পাশে এবং শহরের কোর্ট এলাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও জনাকীর্ণ স্থানে পোস্টার লাগিয়ে রমরমা ব্যবসা করে যাচ্ছে। যৌন আবেদনময়ী ছবি ও যৌন উত্তেজক ভাষা সম্বলিত পোস্টার ও লিফলেটের দিকে তাকিয়ে দেখছে স্কুল-কলেজগামী শিশু, কিশোর-কিশোরী ও যুবক-যুবতীরা। ওই ছবি ও ভাষায় অনেকে কৌতূহলী হলেও লজ্জা পাচ্ছে অনেকে। বয়সের তারতম্যের মানুষগুলো লজ্জায় পোস্টারের দিকে নজর দিতে পারছেন না। এমনকি পোস্টার লাগানো স্থানে দাঁড়িয়ে কথা পর্যন্ত বলতে পারছেন।

মেহেরপুর শহরের বাসস্ট্যান্ডপাড়া এলাকার বাসিন্দা মিজানুর রহমান মজনু জানান, সরকারি মহিলা কলেজ, মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ, সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতকরা ৬০ ভাগ ছেলে মেয়ে শহরের বাসস্ট্যান্ড নজরুল সড়ক ধরে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যায়। ওই পথের দু ধারের ফাঁকা দেয়াল ও প্রতিটি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে অশ্লীল ও যৌন আবেদনময়ী পোস্টার ও যৌন উত্তেজক ভাষা সম্বলিত পোস্টার ও লিফলেট লাগানো হয়েছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি আরো বলেন, বাসের টিকিট কাউন্টারের দেয়ালে চার রঙা একই পোস্টার ও লিফলেট সাঁটানো হয়েছে। যা আমাদের সকলের জন্য দুঃখজনক ও লজ্জাজনক। এ ধরনের পোস্টার ও লিফলেট সরানোর পক্ষে মত দিয়ে শহরের সচেতনমহল প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে মেহেরপুর মুক্তি হাকিমী ওষুধালয়ের নিজামুদ্দিনের সাথে মোবাইলফোনে কথা হলে তিনি জানান, শুধু তার নয় বিভিন্ন হাকিমী ও হারবাল কোম্পানির পক্ষ থেকে ওই ধরনের পোস্টার সাঁটানো হয়েছে। ইতঃপূর্বেও ওই সব পোস্টার সাঁটানো হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো বাধা আসেনি। ভবিষ্যতে যৌন আবেদনময়ী ছবি ও যৌন উত্তেজক ভাষা বাদ দিয়ে যা সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য হয় এমন পোস্টার ও লিফলেট তিনি তৈরি করে ব্যবসার স্বার্থে ব্যবহার করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here