মিশরে গণভোট আজ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: মিশরে খসড়া সংবিধানের ওপর আজ মঙ্গলবার গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। ২০১১ সালে মিশরের সাবেক স্বৈরশাসক হোসনি মুবারকের পর এটি দ্বিতীয় গণভোট। এর আগে দেশটির প্রথম গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি গণভোটের আয়োজন করেছিলেন। মিশরের সেনা সমর্থিত সরকার খসড়া সংবিধানটির পক্ষে জনমত গঠনের জন্য ব্যাপক প্রচারণা চালিয়েছে। রাজধানী কায়রোর সড়কগুলো এখন হ্যাঁ ভোটের পোস্টারে ঢাকা। সরকারি এবং বেসরকারি টিভি চ্যানেল এবং রেডিওগুলোতেও হ্যাঁ ভোটের সমর্থনে নানা অনুষ্ঠান আর তথ্যচিত্র প্রচার করা হচ্ছে। না ভোটের পক্ষে তেমন কোনো প্রচারণা দেখা না গেলেও সংবিধানে নারীদের সম অধিকার ও সংখ্যালঘু খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মর্যাদাকে সমুন্নত রাখা এবং ধর্মভিত্তিক সংবিধানের দাবি জানিয়ে আসছে দেশটির অতি রক্ষণশীল ইসলামী দল। মঙ্গলবার ও বুধবার দু দিন ধরে এ গণভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। মিশরের পাঁচ কোটি ২০ লাখ ভোটার এতে ভোট দেবে বলে আশা করা হচ্ছে। এদিকে অন্তর্বর্তী সরকারের প্রেসিডেন্ট আদলি মনসুর রোববার এক টেলিভিশন ভাষণে বলেছেন, নতুন সংবিধানের মাধ্যমে মিশর একটি আধুনিক সভ্য রাষ্ট্রে পরিণত হবে এবং দেশে যে নতুন নেতা আসবেন তার হাতে থাকবে পূর্ণ ক্ষমতা। মিশরের সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি নতুন সংবিধানের প্রতি সমর্থন জানাতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি এ নির্বাচনকে ক্ষমতা হস্তান্তরে অন্তর্বর্তী সরকারের প্রথম অধ্যায় বলে উল্লেখ করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.