মহেশপুরে যাদবপুরে কলেজ ক্যাম্পাস দখল করে চলছে জুয়ো খেলা প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে নাচ-গানের : এলাকার মানুষের প্রতিবাদ

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার যাদবপুর ডিগ্রি কলেজের গোটা মাঠ দখল করে চলছে প্যান্ডেল তৈরির কাজ। ক্যাম্পাস ঘিরে চলছে নাচ-গানের এ আয়োজন। ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে জুয়োর আসর। ঘিরে ফেলা হয়েছে কলেজ ভবনটিও। গত কয়েকদিন ধরে জুয়ো খেলানো হচ্ছে ওই মাঠে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ করেছেন, একটি মহল এলাকার পরিবেশ নষ্ট করতে এই আয়োজন করছে। কলেজ কর্তৃপক্ষকে জিম্মি করে তারা কলেজমাঠ ব্যবহার করছে। এতে কলেজের শিক্ষার পরিবেশও নষ্ট হচ্ছে। তারা অভিযোগ করেন অনুমোদন না নিয়ে মেলার নামে ফড়গুটি, হাউজি, ওয়ানটেনসহ নানা জুয়োখেলা শুরু হয়েছে। যা বন্ধের দাবিতে গত শুক্রবার বিকেলে সম্মিলিত নাগরিক ঐক্যের ব্যানারে মহেশপুর থানার মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন স্থানীয় নাগরিকের একাংশ। তারা আধাঘণ্টা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন শেষে প্রশাসনের সাথে বিষয়টি নিয়ে মতবিনিময় করে এটা বন্ধের দাবি জানান।

কলেজের একাধিক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করে জানান, গত সপ্তাহ থেকে হঠাত করে তাদের কলেজের মাঠ ঘেরা শুরু হয়। প্রথমে তারা বিষয়টি বুঝে উঠতে পারেনি। পরে শিক্ষকদের সাথে আলাপ করলে তারা জানান, মেলা বসবে। মেলার কথা শুনে তারা তেমন কিছু ভাবেনি। পরে গত বুধবার থেকে দেখেন জুয়ো খেলা শুরু করা হয়েছে। এই দেখে তারা হতবাক। কলেজ মাঠে এভাবে বিকেল থেকে জুয়ো খেলা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। শিক্ষার্থীরা আরো জানান, এখন সেখানে নাচ-গানের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। সেইভাবেই কলেজ ভবন ঘিরে প্যান্ডেল তৈরি করা হচ্ছে। এতে তাদের কলেজের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হবে। তাছাড়া সামনে এসএসসি পরীক্ষা। যাত্রার নামে উচ্চস্বরে মাইক বাজালে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার ক্ষতি হবে।

কলেজের অধ্যক্ষ মনজুরুল ইসলাম জানান, তাকেও মেলার কথা বলা হয়েছে। বলা হয়েছিলো মাঠের কিছু অংশ ব্যবহার করা হবে। এখন দেখা যাচ্ছে জুয়ো খেলা করা হচ্ছে। পাশাপাশি নাচ-গানের আয়োজন চলছে। যা কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনোভাবেই মেনে নিতে পারে না। বিষয়টি নিয়ে তিনি কলেজ পরিচালনা কমিটির সাথে আলোচন করবেন বলে জানান। মহেশপুর উপজেলা নাগরিক ঐক্যের পক্ষ থেকে শুক্রবার শহরের থানার মোড়ে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। সেখানে আলোচনাসভায় বক্তৃতা করেন মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এ.টি.এম খাইরুল আনাম, সাংবাদিক আব্দুর রহমান, আবুল হোসেন লিটন, আব্দুর রাজ্জাক, জিয়াউর রহমান প্রমুখ।

এ ব্যাপারে মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছিমা খাতুন জানান, ইতোমধ্যে তাদের সকল কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে বলা হয়েছে। অনুমোদন ছাড়াই তারা এ আয়োজন করেছিলো। মেলা কর্তৃপক্ষও তাদের জানিয়েছেন অনুমোদন ছাড়া কিছু করবেন না।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য যাদবপুর হাইস্কুলের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ নবী নেওয়াজ বলেন, মেলার ব্যাপারে আমাকে অবহিত করা হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *