মনোহরপুর ও কেডিকে ইউনিয়নের প্রশাসকদের দায়িত্বভার গ্রহণ

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার নবগঠিত মনোহরপুর ও কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের প্রশাসকদ্বয় দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। গতকাল রোববার বিকেলে উথলী ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুল হাফিজ মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্রশাসক হিসেবে শামনুর রহমান ও কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের প্রশাসক হিসেবে মোতাহার হোসেনের হাতে দায়িত্বভার হস্তান্তর করেন। কোনো প্রকার সমস্যা সৃষ্টি না হলে নবনিযুক্ত প্রশাসকদ্বয় সব্বোর্চ ১২০ দিনের মধ্যে উক্ত দুই ইউনিয়নের নির্বাচন সমপন্ন করবেন বলে জানা গেছে। এদিকে নবগঠিত মনোহরপুর ও কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের সুনির্দিষ্ট একটি নীতিমালা থাকলেও পুনগঠিত উথলী ইউনিয়নের নির্বাচন একই সময়ে হবে, না-কি ১৪ বছরের মোয়াদ উত্তীর্ণ পরিষদের ৩ সদস্য উদ্ভট উটের পিঠে আবার চড়ে বসবে তা নিয়ে রীতিমতো ধন্দে পড়েছে এ ইউনিয়নবাসী। বিষয়টি পরিস্কার করতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

উথলী ইউনিয়ন বিভাজন হয়ে ৩টি ইউনিয়ন সৃষ্টি করা হয়েছে। উথলী, মনোহরপুর ও খয়েরহুদা, কাশিপুর ও দেহাটি গ্রাম নিয়ে কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদ। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মাহাবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত ও গত ২৫ মে প্রেরিত পত্রে নবগঠিত মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের জন্য পল্লি জীবিকায়ন প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা শামনুর রহমান ও কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের জন্য উপজেলা সমবায় অফিসার মোতাহার হোসেনকে প্রশাসক নিয়োগ করেন। গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে তাদেরকে দায়িত্বভার বুঝে দেয়া হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুল হাফিজ এ দায়িত্বভার হস্তান্তর করেন। উথলী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে যুবলীগ নেতা খায়রুল বাশার শিপলু, আকিমুল ইসলাম, বৃহত্তর উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন খান, মেহেরপুর পল্লি বিদ্যুত সমিতির সচিব হায়দার আলী, আবুল বাশার টুটুল, শাহ আলম শরিফুল ইসলাম, গোলাম রসুল, আওয়ামী লীগ নেতা শুকুর আলী সরকার, আলমগীর হোসেন, বিএনপি নেতা আবুল কালাম আজাদ, আলম, আরফান কবীর প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *