মনোনয়ন প্রত্যাশী দু প্রার্থীর সমর্থকদের ধস্তাধস্তি : ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

জামজামি প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার ঘোষবিলা হাইস্কুল মাঠে গতকাল শনিবার ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী বাছাই মতবিনিময়সভা হট্টগোলের কারণে পণ্ড হয়েছে। জামজামি ইউনিয়ন আলীগের সভাপতি মো. দিদার আলী মালিতার সভাপতিত্বে ইউনিয়ন আ.লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে মতবিনিময়সভা এক পর্যায়ে সমাবেশ রূপ নেয়। আলোচনা পর্ব উপস্থাপন করেন জামজামি ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক রাহাব উদ্দিন। মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে গতবার আ.লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম পুনরায় আ.লীগের সমর্থন দাবি করে বক্তব্য রাখেন। সাবেক চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন বাবলু চৌধুরী বক্তব্য দিতে উঠে শুভেচ্ছা পর্ব শেষ করেই আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ সময় মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুজ্জামান শাহানুর নিজেকে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে তার এজেন্ডা তুলে ধরেন। এ পর্যায়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা তপন কুমার বিশ্বাস প্রার্থী বাছাইয়ে তার বক্তব্য শেষ করতেই জামজামি ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রতন শাহ বক্তব্য দিতে গিয়ে বিএনপির দালালদের পৃষ্ঠপোষক কাউকে আ.লীগের মনোনয়ন দেয়া হবে না মন্তব্য করতেই বর্তমান চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম প্রতিবাদ জানান। এ সময় সাবেক চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন বাবলু চৌধুরী ও বর্তমান চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সমর্থকদের মাঝে ধস্তাধস্তি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা। খবর পেয়ে জামজামি ফাঁড়ি পুলিশের টুআইসি জুলহাস সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পুলিশের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি শান্ত হলেও শেষ পর্যন্ত আ.লীগের প্রার্থী বাছাই মতবিনিময়সভা পণ্ড হয়ে যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published.