ভারতে হিন্দু শরণার্থী নাগরিকত্ব বিল যাচ্ছে সিলেক্ট কমিটিতে

মাথাভাঙ্গা মনিটর: প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে ভারতে আসা হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে আনা সংশোধনী বিল সংসদের যৌথ সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানো হচ্ছে। বিলটি দ্রুত অনুমোদনের সম্ভাবনা নেই। ফলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ভারতে চলে আসা হিন্দুরা শিগগিরই ভারতের নাগরিকত্ব পাচ্ছেন না। এ ছাড়া বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, জৈন সম্প্রদায়েরও কিছু লোক আপাতত বঞ্চিত থাকছেন নাগরিকত্ব পাওয়ার অধিকার থেকে।

ভারত সরকার প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে আসা হিন্দুসহ অন্যান্য সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেয়ার ব্যবস্থাকে সহজ করতে লোকসভায় এ-সংক্রান্ত একটি বিল আনে। গত বৃহস্পতিবার বিলটি সংসদে উত্থাপনের কথা ছিলো। বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী, ভারতে আসা সংখ্যালঘুদের ১২ বছর ভারতে থাকা বাধ্যতামূলক। এ সময়সীমা সংশোধন করে ৭ বছর করার কথা বলা হয়েছে বিলে। এ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি সংসদের বর্তমান অধিবেশনে পাস হয়ে যাবে বলে ধারণা করা হয়েছিলো। কিন্তু বিরোধীরা বিলটিকে আরও খতিয়ে দেখার পক্ষে মতো দেয়ায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বিলটিকে সংসদের যৌথ সিলেক্ট কমিটির কাছে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আগামী শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম সপ্তাহের শেষ দিনের মধ্যে সিলেক্ট কমিটিকে রিপোর্ট সংসদে পেশ করার কথা বলা হয়েছে। তারপরেই আসবে বিল অনুমোদনের বিষয়টি। লোকসভায় বিজু জনতা দলের সাংসদ ভার্তুহরি মাহতাব নাগরিকত্ব বিলের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে বলেন, বিলটিকে আরও পর্যালোচনা করা জরুরি। সংসদের যৌথ সিলেক্ট কমিটি গঠন করে বিলটিকে সেখানে পাঠানো হোক। ভার্তুহরির দাবিকে সমর্থন করেন কংগ্রেসের জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, তৃণমূল কংগ্রেসের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সিপিআইএমের মহম্মদ সেলিম।

সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলসংক্রান্ত যৌথ সিলেক্ট কমিটিতে বিভিন্ন দলের মোট ৩০ জন সদস্য থাকবেন। এর মধ্যে লোকসভার ২০ জন এবং রাজ্যসভার ১০ জন সাংসদ থাকবেন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *