ভারতীয় ৫শ রুপির ৯৯টি নোটসহ ধরাপড়া বজলুর জেল জরিমনা

স্টাফ রিপোর্টার: ভারতীয় ৫শ রুপির ৯৯টি নোটসহ ধারাপড়া সেই বজলুর রহমানের ৫ বছর কারাদ-, ৫ হাজার টাকা জরিমানা আনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদ-াদেশ দেয়া হয়েছে। চুয়াডাঙ্গার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৪’র বিজ্ঞ বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ গতকাল রোববার আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন। মামলার অপর আসামির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সন্দেহাতিতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে খালাস দেয়া হয়েছে।
দ-িত আসামি বজলুর রহমান ঝিনাইদহ মহেশপুরের ভাবদিয়া পাবনাপাড়ার আজিজুল হকের ছেলে। রায়ের পর তাকে পুলিশ প্রহরায় নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারে। খালাসপ্রাপ্ত জয়নাল আবেদীনের বাড়ি একই গ্রামে। সে গ্রামের উদ্দেশে রওনা হয়েছে।
মামলাসূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে জীবননগর থানা পুলিশের হাতে বজলু ভারতীয় রুপিসহ ধরা পড়ে। ভারতীয় অতো টাকা কেন? পুলিশি প্রশ্নের সন্তোষজনক জবাব দিতে ব্যর্থ হয়। বজলুর রহমান ও তার গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে জয়নাল আবেদীনকে অভিযুক্ত করে ১৯৭৪ সালের ২৫’র (ক) ও (খ) ধারায় অভিযোগপত্র পেশ করে পুলিশ। চুয়াডাঙ্গার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল ৪ এ শুরু হয় বিচার। ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক মামলার ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। সাক্ষ্য প্রমাণ পরীক্ষা করে আসামি দুজনের বিরুদ্ধে বজলুর রহমানের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সন্দেহাতিতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করে উল্লেখিত দ-ে দ-িত করেন। অপর আসামির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তকে খালাস দেন। মামলার রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এপিপি অ্যাড. ইমতিয়াজ আহমেদ উজ্জল, অ্যাড. কাইজার হোসেন জোয়ার্দ্দার ও অ্যাড. নজরুল ইসলাম।

Leave a comment

Your email address will not be published.