ব্যাংকক অচলের আন্দোলনে থাই বিক্ষোভকারীরা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: রাজধানী ব্যাংকক অচল করে দেয়ার আন্দোলনে রাস্তায় নেমেছে থাইল্যান্ডের সরকার-বিরোধী বিক্ষোভকারীরা। ২ ফেব্রুয়ারির আগাম নির্বাচনের আগে সরকারকে উৎখাত করতে এ কর্মসূচি পালন করছে তারা।সোমবার সকাল থেকেই রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো অবরোধ করা ছাড়াও রাস্তায় রাস্তায় ব্যারিকেড দেয়াসহ প্রধান প্রধান মোড়গুলো দখলে রেখেছে বিক্ষোভকারীরা। সরকারকে উৎখাত করে সে জায়গায় একটি অনির্বাচিত গণপরিষদ গঠনই বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য। সরকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ১৮ হাজার পুলিশ মোতায়েন করলেও বিক্ষোভকারীরা বিনা বাধাতেই কর্মসূচি পালন করছে। কর্তৃপক্ষ থেকে তাদের ওপর কোনো বাধা আসেনি। রাস্তায় বিক্ষোভকারীদের মধ্যে দেখা গেছে উৎসবের আমেজ। অনেকে নাচ- গানও করছে। রাজধানী অচল করার কর্মসূচি সফল করতে রাস্তায় নেমেছে হাজারো মানুষ। সরকারকে যেতে হবে, হতে হবে সংস্কার। আমরা একই দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদদের বার বার দেখতে চাই না। সরকারবিরোধীরা রাস্তার ৭টি প্রধান সংযোগস্থল বন্ধ করে দিয়েছে। রাজধানী অচলের কর্মসূচিতে গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়গুলো ঘেরাও করা ছাড়াও সেগুলোর বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়ে কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়ারও পরিকল্পনা আছে তাদের। সেই সাথে প্রায় ১৫০টি স্কুলও বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে তারা। বিক্ষোভকারীদের নেতা সুদেপ থাগসুবান এ আন্দোলনকে জনগণের বিপ্লব আখ্যা দিয়েছেন। এ বিপ্লবের মুখে প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা বিক্ষোভকারীদের নেতা ও রাজনৈতিক দলগুলোকে বুধবার বৈঠকে ডেকেছেন। নির্বাচন কমিশনের ভোট পেছানোর প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার জন্য এ বৈঠক ডাকেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর এক ঊর্ধ্বতন সহযোগী একথা জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *