বেসরকারি স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক কর্মচারীদের শিক্ষক সমাবেশ

গতকাল সোমবার জেলা শিল্পকলা একাডেমীর মুক্তমঞ্চে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে শিক্ষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বেসরকারি স্কুল-কলেজ-মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীর চাকরি জাতীয়করণ, নন এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও ভুক্তির জোর দাবি জানানো হয়।

এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা বাকশিসের সভাপতি অধ্যাপক শেখ সেলিম। সভায় অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম আলমডাঙ্গা উপজেলা বাশিস সভাপতি মো. ইলিয়াস হোসেন, দামুড়হুদা বাশিস সভাপতি আব্দুল মান্নান, চুয়াডাঙ্গা সদর বাশিস সভাপতি নূর মোহাম্মদ, জীবননগর বাশিস সেক্রেটারি আকরাম হোসেন, বাশিস জেলা শাখার অর্থ সম্পাদক ওসমান গনি, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম, আসমানখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম, ছাদেমান নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু ছালেহ, সহকারী শিক্ষিকা ফারহানা খাতুন, মোনতাজুল ইসলাম, কাথুলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাহারুল ইসলাম, নাগদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আক্তার হোসেন, রোমেলা খাতুন বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুজ্জামান মিঠু, কুতুবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল মোমিন, বাশিস সদর উপজেলার অর্থ সম্পাদক মজিবুল হক, সীমান্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মজিবুল হক, বেগমপুর যদুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ওয়ালিউল্লা, মাখালডাঙ্গা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. সাবুদ আলী, ছাদেমান নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সহিদুন্নাহার, গোবিন্দহুদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নূর-এ আরিফা আজম, কুতুবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জহুরুল ইসলাম, সদাবরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান প্রমুখ। প্রধান অতিথি তার বক্তবে বলেন, যতোদিন বেসরকারি স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকরি জাতীয়করণ এবং নন এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দের এমপিওভুক্ত না হবে ততোদিন রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম চলবেই। তিনি আরো বলেন, সরকার সরকারি-আধাসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দকে চলতি মাস থেকে ২০ ভাগ মহার্ঘ ভাতা প্রদানের ঘোষণা দিলেও বেসরকারি স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক-কর্মচারীদের বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট ঘোষণা দেননি। অধ্যাপক শেখ সেলিম এ বিষয়ে সরকারের সুস্পষ্ট ঘোষণা দাবি করে বলেন, মহাজোট সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকবৃন্দের পদমর্যাদা ও বেতন বৃদ্ধির বিষয়ে যতোটা আগ্রহী ঠিক ততোটাই বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের বিষয়ে ততোটাই অনাগ্রহী। তিনি আগামী ৯ অক্টোবর উপরোক্ত দাবি দাওয়া আদায়ের লক্ষ্যে খুলনার জাতিসংঘের শিশুপার্কে সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত বিভাগীয় সমাবেশে চুয়াডাঙ্গা জেলার বেসরকারি ও নন এমপিও স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দকে উপস্থিত থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। -প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *