বেনজির হত্যাকাণ্ডে মোশাররফ অভিযুক্ত

মাথাভাঙ্গা মনিটর: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজীর ভুট্টো হত্যা মামলায় সাবেক সেনাশাসক পারভেজ মুশাররফকে অভিযুক্ত করেছেন দেশটির একটি আদালত। গতকাল মঙ্গলবার রাওয়ালপিন্ডির ওই আদালতে তার বিরুদ্ধে বেনজীরকে হত্যার পরিকল্পনা, তাতে সহযোগিতা ও হত্যার অভিযোগ আনা হয়। যার ফলে, এই প্রথম দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশের সাবেক সেনা প্রধানের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ আনা হলো। বিশেষ করে যে দেশটি জন্মের অর্ধেকেরও বেশি সময় সামরিক শাসনের অধীনে ছিলো এবং যেখানে সেনাবাহিনী এখনো প্রভাবশালী সেখানে একজন সাবেক সেনাপ্রধানের অভিযুক্ত হওয়ার ঘটনা নজীরবিহীন। মুশাররফ ছাড়াও আরো ছয়জনকে এ মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে চারজন সন্দেহভাজন জঙ্গি ও দুজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তাও রয়েছেন। আদালতে সংক্ষিপ্ত শুনানিতে মুশাররফ তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। শুনানি শেষে মুশাররফের আইনজীবী সৈয়দ আফসান আদিল বলেন, এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন। আমরা আইনি লড়াই চালিয়ে যাবো। মুশাররফের মুখপাত্র রাজা বোখারি এক বিবৃতিতে বলেন, এ অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এর মাধ্যমে বিশ্বব্যাপি মুশাররফের সম্মান ও অবস্থানকে ক্ষুণ্ণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ আজহার বলেন, তার বিচার হওয়া উচিত। মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য ২৭ আগস্ট দিন ধার্য করা হয়েছে। এদিকে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ বলেছেন, রাজনৈতিক বিশ্বাসঘাতকতার জন্য মুশাররফের বিচার হওয়া উচিত। ২০০৭ সালের নভেম্বরে মুশাররফ অবৈধভাবে সংবিধান বাতিল করেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তবে এ ঘটনা নওয়াজ শরীফের সরকার ও প্রভাবশালী সেনাবাহিনীর সম্পর্কে টানাপোড়েনের সৃষ্টি করবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a comment

Your email address will not be published.