বিশ্ব টুকিটাকি : গ্রীনফেল টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭

গ্রীনফেল টাওয়ারঅগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭

মাথাভাঙ্গা মনিটর: লন্ডনের পশ্চিমাঞ্চলের ‘গ্রীনফেল টাওয়ার’ নামের ২৭ তলা ভবনে অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের সংখ্যা ১৭ তে পৌঁছেছে। পুলিশ বলছে, উদ্ধার তৎপরতা শেষ হলে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। সত্তরজনের বেশি মানুষকে শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আগুন লাগার আগে নর্থ কেনসিংটনের ওই ভবনটিতে সংস্কার কাজ চলছিল। সে সময় ভবনের বাসিন্দাদের অনেকেই গুরুতর অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকির ব্যাপারে কর্তৃপক্ষকে সাবধান করেছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। এরপর গতকাল যখন আগুন ধরে যায় গ্রীনফেল টাওয়ারে, ভবনটির বাইরের দিকের আচ্ছাদনে ব্যবহৃত সামগ্রীর কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বলে বাসিন্দাদের মধ্যে যারা পালাতে পেরেছেন, তারা অভিযোগ করেছেন। তবে, ঠিক কি কারণে এবং কিভাবে সেখানে আগুন লাগলো সে নিয়ে এখনো পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ কিছু জানাতে পারেনি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ভবনটিতে এখনো অনেকে আটকে রয়েছেন। বাঁচার জন্য কেউ কেউ জানালা দিয়ে লাফিয়ে পড়েছেন নিচে। তবে, ভবনের অনেক বাসিন্দা এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের দেশ লেসোথোর নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী থমাস থাবানের (৭৮) স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। কাল শুক্রবার নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন থাবানে। পুলিশের বরাত দিয়ে বলা হয়, নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী থাবানের স্ত্রী লিপোলেলো থাবানে গতকাল বুধবার তাঁর এক বান্ধবীসহ নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে অজ্ঞাত হামলাকারী তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে লিপোলেলো নিহত হন। গুলিবিদ্ধ হন তার বান্ধবী। পুলিশ বলছে, হামলাকারীর পরিচয় জানা যায়নি। হামলার কারণও স্পষ্ট নয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। ৫৮ বছর বয়সী লিপোলেলো ২০১২ সাল থেকেই স্বামীর কাছ থেকে আলাদা থাকছেন। এর মধ্যে তারা বিবাহ বিচ্ছেদেরও আবেদন করেন। তবে এখনো সেই আবেদনের নিষ্পত্তি হয়নি। এদিকে তিনি আদালতে আইনি লড়াই করে থাবানের ছোট স্ত্রীকে হারিয়ে হবু ফার্স্ট লেডির মর্যাদা পাওয়ার অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। থাবানের দল অল বাসোথো কনভেনশন পার্টির মহাসচিব সামোনিনে এনটিসেকেলে বলেন, এ খবরে থাবানে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

গাড়িতে দমবন্ধ হয়ে ভারতে যমজ শিশুর মৃত্যু

মাথাভাঙ্গা মনিটর: যমজ দুই বোন। কে জানতো নিয়তি তাদের সাথে এমন কিছু লিখে রেখেছে। এক সাথে পৃথিবীতে এসেছিলো তারা বিদায়ও নিলো একসাথে। বুধবার ভারতের গুরগাওয়ের জামালপুরে বদ্ধ গাড়ির মধ্যে আটকা পড়ে দমবন্ধ হয়ে মারা যায় পাঁচ বছরের যমজ দুই বোন হারসা ও হারিসীতা। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানানো হয়। বাবা–মায়ের সাথে ভারতের মিরাটে থাকতো হারসা ও হারিসীতা। তাদের বাবা একজন সেনা কর্মকর্তা। গ্রীষ্মের ছুটিতে জামালপুরের পাতৌদি এলাকায় দাদার বাড়িতে বেড়াতে যায় তারা। সেখানে খেলতে গিয়ে পুরোনো একটি গাড়ির মধ্যে আটকা পড়ে দুই বোন। ধারণা করা হচ্ছে, আটকে পড়ার দুই ঘণ্টা পর গরমে নিশ্বাস বন্ধ হয়ে মারা যায় তারা। পরিবারের সদস্যরা জানান, হারসা ও হারিসীতা দাদার পুরোনো মডেলের একটি হুন্দাই গাড়ি রয়েছে। গাড়িটির দরজার লক নষ্ট ছিলো, জানালাও আটকে যেত প্রায়। তবে গাড়িটি শিশু দুটির খুব প্রিয় ছিলো। প্রায় সময়ই ওই গাড়িতে খেলতে যেতো তারা।

গুয়েতেমালায় শক্তিশালী ভূমিকম্প : নিহত

মাথাভাঙ্গা মনিটর: গুয়েতেমালা ও মেক্সিকোর দক্ষিণাঞ্চলে বুধবার শক্তিশালী ভূমিকম্পে পাঁচজন নিহত হয়েছে। রিখটার স্কেলে এর তীব্রতা ছিলো ৬ দশমিক ৯। এতে অনেক এলাকায় বিদ্যুত ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে এবং বহু ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে। দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা একথা জানান। ভূ-কম্পন সংস্থা জানায়, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল গুয়াতেমালা সিটির প্রায় ১৫৬ কিলোমিটার পশ্চিমে। গুয়াতেমালার দুর্যোগ মোকাবেলা বিষয়ক জাতীয় সমন্বয়ক জানান, রাজধানীসহ প্রায় সারাদেশেই ভূকম্পন অনুভূত হয়। এছাড়া প্রতিবেশী দেশ মেক্সিকোতেও ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। প্রাথমিকভাবে ভূমিকম্পে পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে তিনজন ভূমিকম্পের সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। ভূমিকম্পের পর ভিডিও ফুটেজে উদ্ধারকারী দলকে গুয়াতেমালার পশ্চিমাঞ্চলে ধসে পড়া ঘরবাড়িতে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে দেখা গেছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *