বিদেশে যাওয়ার জন্য নরসিংদীর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বেহুশ : মানসিক ভারসম্যহারানো সোনিয়াকে বাড়ি ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে ঝাড়ফুঁক

হাসাদাহ প্রতিনিধি: অভাব ঘোচাতে মধ্যপ্রাচ্যে পাড়ি দিয়ে বহু নারী ফিরছে নির্মম নির্যাতনের কষ্টমাখা বিস্মৃতি নিয়ে, কেউ কেউ বিদেশে যাওয়ার আগেই আক্রান্ত হচ্ছে মস্তিস্ক বিকৃত রোগে। জীবননগর উপজেলার হাসাদহ আদর্শপাড়ার সোনিয়া খাতুন ঢাকায় প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে মানসিক ভারসম্যহিন হয়ে বাড়ি ফিরেছে। তাকে হাসপাতালের বদলে কবিরাজের নিকট নিয়ে ঝাড়ফুঁকের নামে চলছে অপচিকিৎসা।
চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার উজিরপুরের এক নারী মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানে পাড়ি জমিয়ে গৃহপরিচারিকার কাজের নামে জোটে নির্মম নির্যাতন। ক্ষতবিক্ষত শরীর নিয়ে বাড়ি ফিরে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে। এ ঘটনার সপ্তাহ না ঘুরতেই চুয়াডাঙ্গা জীবননগরের হাসাদহ আদর্শপাড়ার সোনিয়া খাতুন ফিরেছে মানসিক ভারসম্য হারিয়ে। সোনিয়া অবশ্য বিদেশে যাওয়ার পর নির্যাতনের শিকার হননি, তিনি ঢাকায় জনশক্তি রফতানী ব্যুরো পরিচালত নরসিংদীর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ নেয়ার মাঝে মানসিক ভারসম্য হারান। রহস্যজনকভাবে অচেতন হওয়ার পর থেকেই তিনি মানসিক ভারসম্য হারিয়েছেন। সোনিয়ার বিদেশে পাঠানোর জন্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রেরণ ও সেখান থেকে মানসিক ভারসম্যহীন অবস্থায় ফেরানোর বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, স্বামী পরিত্যক্তা সোনিয়া অভাব ঘোচানোর স্বপ্ন নিয়েই বিদেশে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কি এমন ঘটলো যে সে অচেতন হলো, মানসিক ভারসম্য হারালো? অনেকেই সুষ্ঠু তদন্তেও দাবি জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *