বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসসহ বাড়ি ও স্বতন্ত্র প্রাথীর নির্বাচনী অফিস ভাংচুর

নাগদাহ ইউপি নির্বাচন আগামীকাল : দু প্রার্থীর অভিযোগ
স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার নাগদাহ ইউপি নির্বাচনে বিএনপির দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী দারুস সালামের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর ও বাড়িতে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপরদিকে, ভোট জোর করে কেটে নেয়া হবে বলেও কিছু ব্যক্তি আতঙ্ক ছড়াচ্ছে গোটা নির্বাচনী এলাকাজুড়ে। তবে প্রশাসনের তরফে বলা হয়েছে নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার সর্বাত্মক প্রস্তুতি চলছে।
অভিযোগসুত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে বলিয়ারপুর গ্রামে অবস্থিত দারুস সালামের নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে প্রতিপক্ষ এক প্রার্থীর লোকজন। সে সময় দারুস সালামের নির্বাচনী পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। এছাড়া ওই একই নির্বাচনী প্রতিপক্ষের লোকজন রাত সোয়া ৯টার দিকে খেজুরতলাস্থ দারুস সালামের আরেকটি নির্বাচনী অফিসে হামলা চালায়। এ ঘটনায় দারুস সালাম জানান, তিনি ঘটনাটি উপজেলা নির্বাচনী অফিসকে অবহিত করেছেন।
এছাড়া বিএনপির দলীয় চেয়ারম্যানপ্রার্থী মোকলেছুর রহমান কমল জোয়ার্দ্দারের বেশ কয়েকটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর ও তার বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ করা হয়েছে। গতরাতে বলিয়ারপুর, নাগদাহ, চিলাভালকী, খেজুরতলা গ্রামে অবস্থিত বিএনপির প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করে। পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা হয়। প্রার্থী মোকলেছুর রহমান কমল জোয়ার্দ্দার এ ঘটনা স্থানীয় ক্যাম্প পুলিশ ও থানা পুলিশকে অবহিত করেছেন বলে জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার আবু আনছার বলেন, তিনি ঘটনাটি জানার পর আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ও দায়িত্বরত বিজিবি টহল টিমকে অবহিত করেছেন।
উল্লেখ্য, আগামীকাল ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে আলমডাঙ্গা উপজেলার নাগদাহ ও আইলহাঁস ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে ইউনিয়ন দু’টির প্রচার প্রচারণার নির্ধারিত শেষ সময়সীমা ছিলো গতকাল ২৭ মার্চ রাত ১২টা অবধি। নাগদাহ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এবার চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ প্রার্থী। স্বতন্ত্র প্রার্থীর ব্যানারে বর্তমান চেয়ারম্যান দারুস সালাম, আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হোসেন, বিএনপি দলীয় প্রার্থী মকলেছুর রহমান কমল জোয়ার্দ্দার, স্বতন্ত্র প্রার্থী আলমঙ্গীর হোসেন ও বিশ্ব জাকের পার্টির প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। তবে প্রার্থী ৬ জন হলেও এদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে চর্তুমুখী। আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মকলেছুর রহমান জোয়ার্দ্দার, স্বতন্ত্রপ্রার্থী জামায়াত নেতা দারুস সালাম ও জাকের পার্টির মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। এদিকে, বিএনপি দলীয় প্রার্থী মোকলেছুর রহমান কমল জোয়ার্দ্দার ও বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী দারুস সালামের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, বিএনপি প্রার্থীর বাড়িতে হামলার ঘটনা ও জহুরুলনগর গ্রামে দুই মেম্বর প্রার্থীর লোকজনের মধ্যে গ্রামজুড়ে মারামারির ঘটনায় পুরো ইউনিয়নের ভোটারদের মধ্যে ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *