বিএনপির ওয়ার্ড কমিটি করতে গিয়ে আহ্বায়ক কমিটি তোপের মুখে : প্রস্তুতি চলছে পাল্টা কমিটি গঠনের

 

 

বেগমপুর প্রতিনিধি: জেলা ও উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর থেকে ইউনিয়ন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে আহ্বায়ক কমিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ডভিত্তিক পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কাজ শুরু করে। জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে বিএনপির আভ্যন্তরীণ কোন্দল রয়েছে বিদ্যমান। প্রকাশ্যে কমিটির বিপক্ষে কেউ অবস্থান না নিলেও পদ-পদবি না পাওয়ার বেদনা রয়েছে অনেকেরই।

এদিকে দলীয় নির্দেশনায় দরকষাকষির এক পর্যায়ে গত ৮ জুলাই চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাড.শাহাজাহান মুকুল ও যুগ্মআহ্বায়ক আব্দুলখালেক যৌথ স্বাক্ষরিত পত্রে বেগমপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। এ কমিটিতে ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আহাম্মদ আলীকে আহ্বায়ক, আসাবুল হককে যুগ্মআহ্বায়ক, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন জোয়ার্দ্দার, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি মীর লিয়াকত আলী, সাধারণ সম্পাদক আসলাম উদ্দিন, বিএনপি নেতা আজিজুল হক, আশরাফুল আলম, আব্দার আলী, মাসুদ রানা, আব্দুস সবুর ও মুন্নাফ আলীকে সদস্য করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি ঘোষণার দুদিনের মাথায় আলী হোসেন জোয়ার্দ্দার, মীর লিয়াকত আলী, আসলাম উদ্দিন ও আব্দার আলী করেন পদত্যাগ। ইউনিয়ন বিএনপির ত্যাগী আর পোড় খাওয়া নেতারা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব না পাওয়ায় ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে আহ্বায়ক কমিটি।

এদিকে ইউনিয়ন আহ্বায়ক কমিটি ওয়ার্ড কমিটি গঠন করতে গিয়ে পড়েছে তোপের মুখে। প্রায় ওয়ার্ডে পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষণা করতে হচ্ছে ব্যর্থ। ফলে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চাপাক্ষোভ। ইউনিয়নের একাধিক প্রভাবশালী নেতা দাঁড়িয়ে এক প্লাটফর্মে। তাদের মুখে শোনা যাচ্ছে ভিন্ন সুর। প্রস্তুতি চলছে পাল্টা আহ্বায়ক কমিটি গঠনের। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে তাহলে সাধারণ নেতাকর্মীরা পড়বেন দিধাদ্বন্দ্বে। বেগমপুর ইউনিয়নে আবারও বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম থমকে যাবে এমনটাই মনে করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.