দেশের টুকিটাকি : বাল্যবিয়ে ঠেকিয়ে শারমিনের এবার এসএসসি জয়

বাল্যবিয়ে ঠেকিয়ে শারমিনের এবার এসএসসি জয়

স্টাফ রিপোর্টার: নিজের বাল্যবিয়ে ঠেকিয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে সাহসিকতার পুরস্কার পাওয়া ঝালকাঠির রাজাপুরের শারমিন আক্তার এবার এসএসসিও জয় করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এসএসসির ফলাফলে শারমিন জিপিএ- ৪.৩২ পেয়েছে। শিক্ষা জীবন শেষ করে আইনজীবী হতে চায় শারমিন। পাশে দাঁড়াতে চায় অসহায় নারীদের। শারমিন ঝালকাঠির রাজাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে পরীক্ষা দিয়েছে। প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে শারমিন আক্তার বলে, আমার এসএসসি পরীক্ষাই দেয়া হত না, যদি না আমি মায়ের বিরুদ্ধে মামলা করতাম। পরীক্ষার ফলাফল যা হোক না কেন হাসি মুখে মেনে নেবো। তবে আমার ওপর নির্যাতন নেমে না আসলে অনেক ভাল করতাম। শারমিনের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গাজী গোলাম মোস্তফা জানান, নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় ২০১৫ সালের আগস্টে ৩২ বছরের এক পাত্রের সাথে শারমিনের বিয়ে ঠিক করে তার মা। বিয়েতে রাজী না থাকায় তার ওপর নির্যাতন করতো মা ও সেই পাত্র। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এক সহপাঠীর সহযোগিতায় রাজাপুর থানায় মা ও পাত্রের বিরুদ্ধে মামলা করে শারমিন।

 

৯৩ প্রতিষ্ঠানে কেউ পাস করেনি

স্টাফ রিপোর্টার: এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় এবার ৯৩ প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি। এছাড়া এ বছর ২ হাজার ২৬৬টি প্রতিষ্ঠান থেকে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ তথ্য তুলে ধরেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন,  এবার ৯৩ প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি। গত বছর এই সংখ্যা ছিলো ৫৩টি। সেই হিসেবে এ বছর পাস না করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৪০টি বেড়েছে। নানা কারণে দিন দিন শূন্য পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বাড়ছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে। তিনি আরও বলেন, এ বছর শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২ হাজার ২৬৬টি। গত বছর এই সংখ্যা ছিলো ৪ হাজার ৭৩৪টি। এ বছর শতভাগ পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ২ হাজার ৪৬৮টি।

 

এসএসসিতে ছেলের চেয়ে ভাল রেজাল্ট মায়ের

স্টাফ রিপোর্টার: নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় এক সাথে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে মা-ছেলে দুজনই পাস করেছেন। তবে ছেলে মৃন্ময় কুমার কুণ্ডুর চেয়ে ভালো রেজাল্ট করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন মা মলি রাণী। বৃহস্পতিবার এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশিত হয়েছে। ফলাফলে দেখা গেছে, উপজেলার গালিমপুরের মিষ্টি ব্যবসায়ী দেবব্রত কুমার মিন্টুর স্ত্রী মলি রাণী জিপিএ-৪.৫৩ পেয়ে পাস করেছেন। তারই ছেলে মৃন্ময় কুমার কুণ্ডু পেয়েছে জিপিএ-৪ দশমিক ৪৩। দুজনেই কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেন। মলি বাগাতিপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ড্রেস মেকিং অ্যান্ড টেইলারিং ট্রেডের এবং মৃন্ময় বাগাতিপাড়া মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের শিক্ষার্থী ছিলেন। বয়সের বাধাকে উপেক্ষা করে ৩৫ বছর বয়সে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন মলি রাণী কুণ্ডু। নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া থাকাকালে তার বিয়ে হয়। এরপর আর পড়ালেখা করার সুযোগ হয়নি। এরই মধ্যে দুটি সন্তানের জন্ম দেন। বড় ছেলে মৃন্বয় কুমার কুণ্ডু এবং ছোট ছেলে পাপন কুণ্ডু। ছেলেদের পড়ালেখা করাতে গিয়ে তিনি অনুভব করেন তার নিজের পড়ালেখা জানা দরকার। সেই ভাবনা থেকেই স্কুলে ভর্তি হন। চলতি বছর মা ও ছেলে বাগাতিপাড়া ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছেন।

 

এসএসসিতে ফেল করে ছাত্রীর আত্মহত্যা : বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেলো খালার

স্টাফ রিপোর্টার: জামালপুরে ইসলামপুরে গতকাল বৃহস্পতিবার এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে শারমিনা (১৬) নামে এক ছাত্রী ট্রেনের নিচে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে তার খালা নিহত হয়েছেন। এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা গেছে, পৌর এলাকার মোশারফগঞ্জ গাইছি পাড়ার আব্দুল সালামের মেয়ে শারমিনা (১৬) এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তার খালা নজরুলের স্ত্রী সুকতারা আক্তার সুমির (২৫) বাড়ির কাছে আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে লাফ দেয়। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে সুকতারা আক্তার সুমি মারা যান। সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুল ইসলাম চুন্নু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *